×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

দোকানে থরে থরে সাজানো শীতের বাহারি পোশাক, দেখা নেই ক্রেতার

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ১৪ ডিসেম্বর ২০২০ ১৫:৫৩
শীতের পোশাকের পশরা সাজিয়ে অপেক্ষা করছেন বিক্রেতা। কিন্তু দেখা নেই ক্রেতার—নিজস্ব চিত্র।

শীতের পোশাকের পশরা সাজিয়ে অপেক্ষা করছেন বিক্রেতা। কিন্তু দেখা নেই ক্রেতার—নিজস্ব চিত্র।

শীত পড়তে না পড়তেই বাঙালি শীতপোশাক কিনতে ভিড় করে দোকানে। ফি বছরের সেই পুরনো হিড়িকের চেনা ছবি এ বছর উধাও বর্ধমানে। বিভিন্ন দোকানে থরে থরে সাজানো আছে শীতের রং বেরং-এর বাহারি পোশাক। শাল, সোয়েটার, টুপি থেকে নরম কম্বল—পশরা সাজিয়ে অপেক্ষা করছেন বিক্রেতা। কিন্তু দেখা নেই ক্রেতার।

বিক্রেতা অয়ন ঘোষের কথায়,‘‘লকডাউনের জন্য এ বছর সাধারণ মানুষের হাতে টাকা নেই। তা ছাড়া করোনা ভাইরাসের ভয়ে ক্রেতা তেমন ভাবে বাজারে আসছেনও না। আবার এখনও তেমন ভাবে জাঁকিয়ে শীত পড়েনি। ফলে ব্যবসার হাল বেশ খারাপ।’’

কাশ্মীরি শালবিক্রেতা মহম্মদ মমতাজ জানিয়েছেন, টুকটাক শীতের পোশাক বিক্রি হচ্ছে ঠিকই। কিন্তু অন্য বছর এই সময়ে বেশির ভাগ শীতের পোশাক দোকান থেকে বিক্রি হয়ে যায়। কিন্তু এ বার সেই ছবি এখনও দেখা যায়নি। আর এক ব্যবসায়ী গৌতম দত্তও এই অবস্থার জন্য দুষছেন অতিমারি এবং লকডাউনকেই।

Advertisement

আরও পড়ুন: আগাছায় ঢাকা মন্দির চত্বর দেখে ক্ষুব্ধ পর্যটকেরা

তবে এখনই নিরাশ হচ্ছেন না ব্যবসায়ীরা। অপেক্ষায় আছেন, শীত আরও জমিয়ে পড়ার জন্য। তাঁদের আশা, ঠান্ডা আরও পড়লে শীতবস্ত্রের বিক্রিবাটা বাড়বে।

আরও পড়ুন: রাস্তা-ভাতা কিছুই মেলেনি, নালিশ নেতাদের পেয়ে

Advertisement