Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বিনয় তামাংদের দলে টেনে গুরুংয়ের পাল্টা প্যাঁচ দিতে চলেছে বিজেপি

বিজেপি সূত্রের খবর, সল্টলেকে বিনয়-অনীতের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজ্য কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তার পরেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন বিনয়রা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ ডিসেম্বর ২০২০ ১৩:০৬
অনিত থাপা, কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং বিনয় তামাং। —ফাইল চিত্র

অনিত থাপা, কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং বিনয় তামাং। —ফাইল চিত্র

বিমল গুরং, রোশন গিরিরা ভোল বদলে বিজেপি থেকে যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূলে। তারই পাল্টা হিসেবে গুরুংয়ের বিরোধী গোষ্ঠীভুক্ত তথা তৃণমূল ঘনিষ্ঠ বিনয় তামাংকে এবার দলে টানছে বিজেপি। বুধবারই বিনয় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অনীত থাপার বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার কথা। তার আগে সল্টলেকের গোর্খা ভবনে অনুগামীদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন বিনয়-অনিতরা।

বিজেপি সূত্রের খবর, বিনয়-অনীতের সঙ্গে বুধবারই বৈঠক করবেন রাজ্য বিজেপি-র পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তার পরেই বিনয়রা আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন। তৃণমূলের শীর্ষনেতাদের একাংশ অবশ্য এই ‘ভোলবদল’-কে খুব একটা গুরুত্ব দিতে রাজি নন। তাঁদের মতে, পাহাড়ে বিনয়দের চেয়ে গুরুংয়ের প্রভাব অনেক জোরাল। গুরুং যার সঙ্গে থাকবেন, ভোটও থাকবে তার সঙ্গে। অতীতেও এটা বহুবার প্রমাণিত হয়েছে। এই বিধানসভা ভোটেও তেমনই হবে।

প্রসঙ্গত, বিনয় একটা সময়ে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চায় গুরংয়ের ‘ঘনিষ্ঠ এবং আস্থাভাজন’ বলেই পরিচিত ছিলেন। কিন্তু তার পর তাঁদের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। পাহাড়ে অশান্তির পর গুরুং ঢলে পড়েন বিজেপি-র দিকে। গত লোকসভা ভোটেও তিনি বিজেপি-কেই সমর্থন করেছিলেন। রাজনীতিশ্রুতি: গুরুংয়ের ‘দৌলতেই’ বিজেপি দার্জিলিং লোকসভা আসনটিতে জিতেছিল। বিনয়দের কোনও প্রভাব সেখানে কাজ করেনি। তার পর থেকেই গুরুংয়ের সঙ্গে সেতুবন্ধনের চেষ্টা শুরু করেছিল ‘টিম মমতা’। শেষপর্যন্ত গত মাসে গুরুং এবং তাঁর আস্থাভাজন রোশন তৃণমূলের প্রতি তাঁদের সমর্থনের কথা প্রকাশ্যে আনেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: নারী সুরক্ষা কেন্দ্রে গর্ভপাত! যোগী রাজ্যে অভিযোগ ‘লভ জেহাদ’-এ ধৃত মহিলার

গুরুংয়ের যোগদানের পর বিনয় এবং তাঁর অনুগামীরা যে ‘অখুশি’ হবেন, তা বোঝা যাচ্ছিল। যদিও প্রকাশ্যে তা নিয়ে বিনয়রা কোনও উচ্চবাচ্য করেননি। নবান্নে তাঁদের একটি বৈঠকেও ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। সেখানকার আলোচ্য তালিকায় গুরুং ছিলেন না বলেই বিনয়রা আলোচনার পর দাবি করেছিলেন। কিন্তু তাঁদের মধ্যে যে একাট ক্ষোভ রয়েছে গুরুংয়ের তৃণমূলে যোগদান নিয়ে, তা তাঁরা ঘনিষ্ঠ মহলে গোপন করেননি।

আরও পড়ুন: ১০ বছর খেয়ে এখন বিরোধী! তোপ মমতার

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী এখন রয়েছেন উত্তরবঙ্গ সফরে। মঙ্গলবারই তিনি জানিয়েছেন, পাহাড়ের স্থায়ী সমস্যার সমাধান তাঁরাই করবেন। তার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আপাতত তৃণমূল-ঘনিষ্ঠ বিনয়দের সঙ্গে কৈলাস বৈঠকে বসায় রাজনৈতিক মহলে স্পষ্ট বার্তা যাচ্ছে বলেই বিজেপি সূত্রের দাবি। এখন দেখার, বিজেপি-তে বিনয়রা বুধবারই যোগ দেন কি না। দিলে যোগদানের পর তাঁরা কী বলেন! বিজেপি সূত্রের দাবি, যোগদানের পর তাঁরা গুরুং-তৃণমূল ‘সখ্য’-কে রাজনৈতিক আক্রমণ করবেন।

আরও পড়ুন

Advertisement