Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মাদক মামলার তদন্তে গোয়েন্দা বিভাগ, রাকেশ সিংহকে তলব

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৮:০১
পামেলা গোস্বামী সম্পর্কে পুলিশ কমিশনারকে রাকেশ সিংহের চিঠি।

পামেলা গোস্বামী সম্পর্কে পুলিশ কমিশনারকে রাকেশ সিংহের চিঠি।
নিজস্ব চিত্র।

মাদক মামলার তদন্তের ভার হাতে নিল কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। পাশাপাশি তলব করা হল বিজেপি নেতা রাকেশ সিংহকে। মঙ্গলবার বিকেল ৪টের মধ্যে রাকেশকে হাজিরা দিতে নির্দেশ দেওয়া হল। এর আগে মাদক-সহ ধৃত বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামী আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে রাকেশ সিংহের নাম নিয়েছিলেন। দাবি করেছিলেন, বিজেপি-র কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়ের ঘনিষ্ঠ ওই নেতাকে গ্রেফতার করা হোক। তারপর সেই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে কলকাতার পুলিশের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি দেন রাকেশ। কলকাতার পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্রকে চিঠি দিয়ে সে কথা জানিয়েছিলেন তিনি। ওই চিঠিতে রাকেশ লেখেন, এর পর যদি পামেলা ফের তাঁর নাম প্রকাশ্যে আনেন তা হলে কলকাতা পুলিশের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ করা হবে।

গত শুক্রবার নিউ আলিপুর থানার পুলিশ কোকেন-সহ গ্রেফতার করে পামেলাকে। পর দিন তাঁকে আদালতে হাজির করানো হয়। আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে তিনি কৈলাস এবং রাকেশের বিরুদ্ধে ‘চক্রান্ত’-এর অভিযোগ তোলেন। রাকেশের গ্রেফতারির দাবিও তোলেন ওই বিজেপি নেত্রী। তাঁর নাম প্রকাশ্যে বলার পর রাকেশ দাবি করেন, পামেলাকে চাপ দিয়ে ও সব কথা বলানো হচ্ছে। রবিবার তিনি কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে যে চিঠি পাঠিয়েছেন, সেখানে এই উল্লেখ করেছেন তিনি।

রাকেশ লিখেছেন, ‘১৯ ফেব্রুয়ারি কোকেন-সহ পামেলা গোস্বামী গ্রেফতার হয়। সংবাদমাধ্যম দেখে যা বুঝেছি, সেই সময় তিনি কিচ্ছুটি বলেননি। তাঁকে আদালতে হাজির করানো সময় আচমকা তিনি কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ঘনিষ্ঠ বলে আমার নামে চিৎকার করেন। এটা থেকে ভাল ভাবে বোঝা যাচ্ছে, পুলিশি হেফাজতে থাকার সময় জোর করে আমার নাম তাঁর মুখে বসানো হয়েছে। সে কারণেই তিনি ধরা পড়ার পর আমার নাম বলেননি, কয়েক ঘণ্টা পরে বলেছেন’। এর পরেই রাকেশ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। লিখেছেন, ‘এর পর যদি কখনও প্রকাশ্যে পামেলা তাঁর নাম নেন, তা হলে আমি কলকাতা পুলিশের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব’।

Advertisement

তদন্তের স্বার্থে পুলিশ তাঁকে ডাকলে তিনি যেতে রাজি বলে জানিয়েছেন রাকেশ। সোমবার তিনি বলেন, “এর নেপথ্যে কোনও ষড়যন্ত্র নেই তো? আমার নাম কেন নেওয়া হচ্ছে? পুলিশ যদি আমাকে কিছু জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রয়োজন মনে করে, তা হলে ডাকুক। আমি যেতে রাজি আছি। কিন্তু আদালতে প্রকাশে এ ভাবে কেন আমার নাম নেওয়া হচ্ছে।’’

কলকাতা পুলিশের তরফে রাকেশের চিঠির প্রাপ্তিস্বীকার করা হলেও এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

আরও পড়ুন

Advertisement