Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শুভেন্দু দলে যোগ দেওয়ার পরেই নারদের ভিডিয়ো মুছল বিজেপি

নারদ-কাণ্ডে অভিযুক্ত মুকুল রায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে বিজেপি আগেই দলে নিয়েছে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ ডিসেম্বর ২০২০ ০৪:২৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
ছবি পিটিআই।

ছবি পিটিআই।

Popup Close

নারদ স্টিং অপারেশনে অভিযুক্ত শুভেন্দু অধিকারী দলে যোগ দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই নিজেদের ইউটিউব চ্যানেল থেকে ওই কাণ্ডের ভিডিয়ো মুছে দিল বিজেপি। যার পরে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব ‘ওয়াশিং পাউডার বিজেপি’ বলে কটাক্ষ করলেন গেরুয়া দলকে। তৃণমূল নেতৃত্বেরও বক্রোক্তি, ‘‘বিজেপির তো সবই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত!’’

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের ময়দানে নারদ স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো ফুটেজগুলি ছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির প্রচারের অন্যতম প্রধান হাতিয়ার। বস্তুত, বিজেপির রাজ্য দফতরে সাংবাদিক সম্মেলন করে বেশ নাটকীয় কায়দায় ওই ভিডিয়ো ফুটেজগুলি দেখিয়েছিলেন রাজ্য দলের তৎকালীন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক সিদ্ধার্থনাথ সিংহ। বিজেপি সাড়ম্বর দাবি করেছিল, তারাই প্রথম এই ভিডিয়ো প্রকাশ করছে। সেই নারদ-কাণ্ডে অভিযুক্ত মুকুল রায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে বিজেপি আগেই দলে নিয়েছে। মুকুলবাবু ২০১৭ সালে এবং শোভনবাবু ২০১৯ সালে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তবে তার পরেও নারদ-কাণ্ডের ভিডিয়ো বিজেপির ইউটিউব চ্যানেলে থেকে গিয়েছিল। শুভেন্দু গত শনিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সভামঞ্চে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরে তা মুছে দেওয়া হয়।

বিভিন্ন কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্তদের বিজেপি দলে নিয়ে এসেছে, এই চর্চা ফের সামনে এসেছে শুভেন্দুর যোগদান এবং নারদ-কাণ্ডের সঙ্গে তাঁর যোগসূত্রের প্রেক্ষিতে। শাহ স্বয়ং রবিবার সাংবাদিক সম্মেলেন এ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘‘কারও বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ থাকলে বিজেপিতে এলেই কিছু মাফ হয়ে যায় না। বিজেপির কোনও নেতা-কর্মী আইনের ঊর্ধ্বে নন।’’ শাহ এ কথা বলার পরেও বিজেপির ইউটিউব চ্যানেল থেকে নারদ-কাণ্ডের ভিডিয়ো মুছে দেওয়া হল কেন? এর কোনও সদুত্তর বিজেপি নেতারা দেননি। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, ‘‘ওই ভিডিয়ো আমাদের ইউটিউব চ্যানেল থেকে মুছে দেওয়া হয়েছে কি না, তা-ই জানি না।’’ সায়ন্তন জানান, তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন। এ বিষয়ে বিজেপির আইটি সেলের সর্বভারতীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা অমিত মালবীয় এবং রাজ্য দলের সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের আহ্বায়ক উজ্জ্বল পারেখের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। বিজেপি সূত্রের খবর, দলের একাংশ মনে করছে, তৃণমূলের যে সব নেতা নানা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত এবং যাঁদের বিরুদ্ধে জনমানসে ক্ষোভ রয়েছে, তাঁদের দলে নেওয়া বন্ধ না-হলে বিধানসভা ভোটে জয়ের স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে। দিলীপবাবু অবশ্য এ দিনও দুর্গাপুরে বলেন, ‘‘রাজ্যে বিজেপির সরকার গড়তে যাঁরা বাধা দিচ্ছেন, তাঁদের কোমরের জোর নেই। তাঁরা তাই পুলিশকে দিয়ে বাধা দিচ্ছেন। তৃণমূলের নেতা বিজেপিতে যোগ দিতে চান। কিন্তু পুলিশ দিয়ে তাঁকে আটকে রাখা হয়েছে। অনেকেই তাই ইচ্ছা সত্ত্বেও আসতে পারছেন না। আমি বলছি, আমাদের এই অফার আগামী বছরেও থাকবে। চলে আসবেন।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: ফের কথা মমতা-শরদের, কলকাতায় জনসভা করতে পারে বিরোধী শিবির

নারদ-কাণ্ডের ভিডিয়ো বিজেপির ইউটিউব চ্যানেল থেকে উধাও হয়ে যাওয়ার পরে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালার কটাক্ষ, ‘‘বিজেপি কি ‘ওয়াশিং পাউডার’-এর কাজ করে!’’ বোলপুরে গরিব চাষির বাড়িতে শাহর মধ্যাহ্নভোজন নিয়েও কটাক্ষ করেছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের টুইটার হ্যান্ডল থেকে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, ‘‘এক দিকে দিল্লির সীমানায় অন্নদাতাদের উপরে লাঠি চালানো হচ্ছে। আর এক দিকে অন্নদাতাদের বাড়িতে গিয়েই শাহ অন্নগ্রহণ করছেন। একই সঙ্গে দু’টো কাজ তিনি কী করে পারেন?’’ রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা তাপস রায় বলেন, ‘‘বিজেপি রাজনৈতিক কারণেই ওই ভিডিয়ো রেখেছিল, রাজনৈতিক কারণেই তা তুলে নিয়েছে। নারদের ধুয়ো তুলে ভয় দেখিয়ে কাজ হাসিল করা ওদের বোধহয় হয়ে গিয়েছে!’’

আরও পড়ুন: নেতাজি জন্মজয়ন্তী উদযাপনে কমিটি, বাংলায় টুইট করে ঘোষণা মোদীর

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement