Advertisement
২৮ নভেম্বর ২০২২
COVID-19

করোনা আক্রান্ত কলকাতা পুলিশের কর্মী, ভর্তি বাঙুরে

হাসপাতাল সূত্রে খবর, প্রথমে কিডনির অসুখ নিয়ে ভর্তি হন ওই পুলিশকর্মী। পরে তাঁর শরীরে কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

এমআর বাঙুর। ফাইল চিত্র।

এমআর বাঙুর। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০২০ ০২:৪১
Share: Save:

চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মীদের পর এ বার কোভিড আক্রান্ত হলেন এক পুলিশকর্মীও। রাজ্যে এই প্রথম কোনও পুলিশকর্মীর আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেল। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, এমআর বাঙুর হাসপাতালে ১২ এপ্রিল ভর্তি করা হয় ওই পুলিশ কর্মীকে। কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল পদমর্যাদার ওই কর্মী উত্তর ডিভিশনের একটি থানায় কর্মরত।

Advertisement

হাসপাতাল সূত্রে খবর, প্রথমে কিডনির অসুখ নিয়ে ভর্তি হন ওই পুলিশকর্মী। পরে তাঁর শরীরে কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে লালারস সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সেই রিপোর্ট পজিটিভও আসে। নারকেলডাঙা পুলিশ কোয়ার্টারে থাকেন ওই পুলিশকর্মী। রিপোর্ট পজিটিভ হওয়ার পরে তাঁর পরিবারকে কোয়রান্টিনে পাঠানো হয়েছে বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, কোভিডের পাশাপাশি অন্যান্য পুরনো রোগ থাকায় ওই পুলিশকর্মীর শারীরিক অবস্থা যথেষ্ট সঙ্কটজনক। যদিও কলকাতা পুলিশের কমিশনারকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি কোনও উত্তর দেননি।

কোভিডের মোকাবিলায় সক্রিয় কলকাতা পুলিশ বাহিনী। বাহিনীর সদস্যরাও আক্রান্ত হতে পারেন এই আশঙ্কা থেকেই পুলিশ ট্রেনিং স্কুলে একটি বিশেষ শাখা গঠন করা হয়েছে। কলকাতা পুলিশ সূত্রে খবর, ১২ জন পুলিশ কর্মীকে বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। বাহিনীর কারও মধ্যে কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে, কেউ আক্রান্ত হলে তাঁকে দ্রুত আইসোলেশনে পাঠানো, তাঁর পরিবার এবং সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে কোয়রান্টিনে পাঠানোর মতো প্রথামিক বিষয়গুলো করবে এই বিশেষ শাখা।

আরও পড়ুন: আবার ‘হেনস্থা’ হাসপাতালকর্মীদের

Advertisement

আরও পড়ুন: ব্রেক দ্য চেন: হাই রিস্ক স্পটে একগুচ্ছ নতুন কৌশল স্বাস্থ্য দফতরের

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.