Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Health

করোনা হাসপাতালে মোবাইলের ব্যবহার নিষিদ্ধ করল রাজ্য সরকার

ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে  কোভিড-১৯ ভাইরাস ছড়াতে পারে। সেই কারণেই সমস্ত করোনা হাসপাতালে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০২০ ২৩:৩৭
Share: Save:

রাজ্যের সমস্ত করোনা হাসপাতালে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ করল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার রাতে এই মর্মে নবান্ন থেকে একটি নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। সমস্ত জেলার জেলাশাসক, মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক এবং করোনা হাসপাতালের সুপারদের।

ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কোভিড-১৯ ভাইরাস ছড়াতে পারে। সেই কারণেই সমস্ত করোনা হাসপাতালে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ওই নির্দেশিকায় জানানো হয় যে, ওই নিয়ম চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে রোগী সকলের জন্য প্রযোজ্য। কেউ মোবাইল নিয়ে হাসপাতালের মধ্যে ঢুকতেও পারবেন না। ঢোকার আগেই মোবাইল জমা রাখতে হবে নির্দিষ্ট জায়গায়। তার বিনিময়ে রশিদ দেওয়া হবে। হাসপাতাল থেকে বেরনোর সময় ওই রশিদ দেখিয়ে মোবাইল ফেরত পাওয়া যাবে।

ওই নির্দেশিকায় আশ্বাস দেওয়া হয়েছে যে, অবিলম্বে সব করোনা হাসপাতালগুলোতে যোগাযোগের সুবিধের জন্য বেসিক ফোন এবং ইন্টারকমের ব্যবস্থা করা হবে। কর্মীদের মধ্যে সমন্বয় বজায় রাখা এবং এবং কাজে যাতে সমস্যা তৈরি না হয়, সে কারণেই এই ব্যবস্থা করা হবে। প্রয়োজনে রোগীরাও যাতে বাইরে থেকে আসা ফোন ধরতে পারেন এবং বাইরে ফোন করতে পারেন, তার সুবিধাও দেওয়া হবে। অবিলম্বে এই নিয়ম রাজ্যের সমস্ত করোনা হাসপাতালে কার্যকর করতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: আরজি কর, কলকাতা মেডিক্যালে আক্রান্ত আরও চিকিৎসক-নার্স, কর্মী সঙ্কটের আশঙ্কা

আরও পড়ুন: শুধু বিরোধী শাসিত রাজ্যে কেন্দ্রীয় দল কেন? তীব্র আক্রমণে ডেরেক-সুদীপ

প্রসঙ্গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সোমনাথ দাস নামে এক যুবককে পুলিশ আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। গত সোমবার থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে যেটি এম আর বাঙুরের কোভিড চিকিৎসা কেন্দ্র বলে দাবি করা হয়েছে ওই ভিডিয়োতে। অভিযোগ ওই ভিডিয়োতে বেশ কিছু আপত্তিকর বক্তব্য এবং ছবি রয়েছে। সেই ভিডিয়ো যোগেই ওই যুবককে চিহ্নিত করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে পুলিশ সূত্রে। ওই যুবক হাসপাতালে কোভিড আক্রান্ত সন্দেহে ভর্তি হয়েছিলেন। তাঁর রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE