Advertisement
১৪ এপ্রিল ২০২৪

‘বাবরি ২৫’-এ বাম নিশানায় তৃণমূলও

সচরাচর ধর্মতলা থেকে মৌলালির রামলীলা ময়দান পর্যন্ত মিছিল করে বামেরা। কিন্তু কাল, বুধবার ‘কালা দিবসে’র মিছিল যাবে সংখ্যালঘু এলাকা ছুঁয়ে পার্ক সার্কাস পর্যন্ত।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:০৩
Share: Save:

বাবরি ধ্বংসের ২৫ বছর পূর্তিকে উপলক্ষ করে মুসলিম মন জয়ে তৎপর হচ্ছে সিপিএম। সাম্প্রদায়িকতা-বিরোধী মিছিলে সে দিন ভাল রকম লোক জড়়ো করার পরিকল্পনা নিয়েছে তারা। পাশাপাশিই মেরুকরণে মদত দেওয়ার দায়ে তারা বিঁধছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকেও।

সচরাচর ধর্মতলা থেকে মৌলালির রামলীলা ময়দান পর্যন্ত মিছিল করে বামেরা। কিন্তু কাল, বুধবার ‘কালা দিবসে’র মিছিল যাবে সংখ্যালঘু এলাকা ছুঁয়ে পার্ক সার্কাস পর্যন্ত। ওই দিনের কর্মসূচির প্রস্তুতি হিসাবে শহরের নানা প্রান্তে তিন দিন ধরে ছোট ছোট সভাও করছে সিপিএম। তার মধ্যে তিলজলায় গত বছরের বিধানসভা ভোটের পরে আজ, মঙ্গলবারই প্রথম প্রকাশ্য সভা করবে তারা। যেখানে বক্তা মহম্মদ সেলিম ও শতরূপ ঘোষ।

সঙ্ঘ পরিবারের প্রচারের জবাব দিতে সিপিএমের যুব সংগঠন ডিওয়াইএফআইয়ের কলকাতা জেলা কমিটি তৈরি করেছে একটি পুস্তিকা ‘ভাগের অঙ্ক’। দীনেশ মজুমদার ভবনে সোমবার ওই পুস্তিকা প্রকাশ করে দলের পলিটব্যুরো সদস্য সেলিম বলেন, ইতিহাস ও কল্পকাহিনীকে গুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে তথ্য পরিবেশন করার দায়িত্ব নিতে হবে বামপন্থীদেরই। সেই সঙ্গেই তাঁর মন্তব্য, ‘‘বাবরি ধ্বংসের আগে সেই করসেবার সময় থেকেই আমরা ধর্মকে রাজনীতির বর্ম করার প্রতিবাদ করছি। তৃণমূল নেত্রী সেই সময়ে বলতেন, বাজপেয়ী ভাল, আডবাণী খারাপ। পরে হল, আডবাণী ভাল, মোদী খারাপ। এখন আবার মোদী ভাল, অমিত শাহ খারাপ! এগুলো আসলে মতাদর্শের অভাব।’’ আর ৬ ডিসেম্বর ‘কালা দিবস’ পালনের ডাক দিয়ে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রের টুইট, ‘’২৫ বছর আগে শুরু একটা মসজিদের কাঠামোই ধ্বংস হয়নি। বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের সংস্কৃতিতে আঘাত করা হয়েছিল।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE