Advertisement
২০ মে ২০২৪

পিনকন-প্রধানকে হাতে পাবে অপরাধ দমন শাখা

পিনকন-প্রধান মনোরঞ্জন রায়-সহ চার জনকে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে রাজস্থান পুলিশের জয়পুর স্পেশ্যাল ব্রাঞ্চ।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০১৭ ০৪:৫০
Share: Save:

বহু গুণ টাকা ফেরতের টোপে দেদার টাকা তুলে প্রতারণার ঘটনায় রাজস্থান পুলিশের হাতে ধরা পড়ার পরে জেল হেফাজতে আছেন পিনকন সংস্থার কর্ণধার মনোরঞ্জন রায় এবং তাঁর তিন সহযোগী। অথচ সংস্থার সদর পশ্চিমবঙ্গে। তাই ওই চার জনকেই নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার জন্য আদালতের অনুমতি চেয়েছিল রাজ্যের আর্থিক অপরাধ দমন শাখা (ডিইও)। সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে তমলুক আদালত।

পিনকন-প্রধান মনোরঞ্জন রায়-সহ চার জনকে বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে রাজস্থান পুলিশের জয়পুর স্পেশ্যাল ব্রাঞ্চ। তাদের অভিযোগ, আমানতকারীদের টাকা লুঠ তো হয়েছেই। সেই সঙ্গে নোটবন্দির সময়ে কলকাতায় পিনকনের তিনটি অফিসে এক গুপ্তচক্র মারফত দেদার টাকা লেনদেন হয়েছে। মনোরঞ্জনেরা আপাতত জেল-হাজতে। রাজস্থান পুলিশের পাশাপাশি এ রাজ্যের আর্থিক দমন শাখাও পিনকনের আর্থিক দুর্নীতির তদন্ত শুরু করেছে। পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরি থানার একটি মামলায় মনোরঞ্জনের স্ত্রী তথা পিনকনের অন্যতম ডিরেক্টর মৌসুমি রায় এবং অন্য ডিরেক্টর ললিতা সারোগিকে গ্রেফতার করেছে। মনোরঞ্জন-সহ চার কর্তাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার জন্য তমলুক আদালতেই আবেদন করে আর্থিক অপরাধ দমন শাখা। বিচারক ৪ ডিসেম্বরের মধ্যে ওই চার জনকে কলকাতায় আনার জন্য তদন্তকারী সংস্থার আবেদন মঞ্জুর করেছেন বলে তমলুক আদালত সূত্রের খবর। ডিইও সূত্রের খবর, কয়েক দিন আগে মৌসুমি ও ললিতাকে নিয়ে কলকাতার রেডক্রস প্লেস, শেক্সপিয়র সরণি ও ডেকার্স লেনে পিনকনের অফিসে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়েছে। ওই সব অফিস থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বেশ কিছু নথি, কম্পিউটার ও পেনড্রাইভ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE