Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

যোগী-পথে ডেঙ্গি ঠেকান: সিদ্ধার্থ

ডেঙ্গি মোকাবিলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার তাঁদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে পারে বলে মন্তব্য করলেন উত্তরপ্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিদ্ধার্থন

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০১ অক্টোবর ২০১৮ ০৪:০৫
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ডেঙ্গি মোকাবিলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার তাঁদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে পারে বলে মন্তব্য করলেন উত্তরপ্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিদ্ধার্থনাথ সিংহ। কলকাতায় রোটারি সদনে রবিবার ন্যাশনালিস্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন এবং বিজেপির মেডিক্যাল সেল আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন পর্যবেক্ষক সিদ্ধার্থনাথ বলেন, ‘‘সংবাদপত্রে পড়ছি, পশ্চিমবঙ্গে ডেঙ্গি বিরাট সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মানুষ এতে মারাও যাচ্ছেন। গত বছর উত্তরপ্রদেশেও ডেঙ্গি বিরাট সমস্যা ছিল। কিন্তু এ বছর সেখানে ডেঙ্গিতে এক জনও মারা যাননি। আমাদের রাজ্যে ২৩ কোটি মানুষ। আমরা যদি এটা পেরে থাকি, তা হলে ৯ কোটি মানুষের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ পারবে না কেন?’’ এর পরেই তাঁর সংযোজন, ‘‘এখানকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী চাইলে আমাদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলতে পারেন।’’

রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য অবশ্য বলেন, ‘‘সিদ্ধার্থনাথ সিংহকে আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে ভাবতে হবে না। আমরা ওঁর জ্ঞান শুনতে চাই না!’’ এর আগে বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে বলেছিলেন, অজানা ‘নিপা’ ভাইরাসের মোকাবিলা করে কেরল সরকার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে। কিন্তু বাংলার সরকার রোগ গোপন করতে ব্যস্ত! বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ এ বার উত্তরপ্রদেশের দৃষ্টান্ত টানায় পাল্টা কটাক্ষই করেছে তৃণমূল।

সিদ্ধার্থনাথ অভিযোগ করেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার আয়ুষ্মান প্রকল্পটির প্রচার করছে না। কারণ, তারা ভয় পাচ্ছে, এই প্রকল্পের প্রচার হলে লোকসভা ভোটে নরেন্দ্র মোদীর সুবিধা হবে। কিন্তু ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থ দেখতে গিয়ে সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যের সুযোগ থেকে বঞ্চিত করছে রাজ্য সরকার।’’ তাঁর বক্তব্য, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের দাবিকে গুরুত্ব দিয়ে শুধু এই রাজ্যেই ‘আয়ুষ্মান ভারত’ প্রকল্পের চেহারা একটু বদলে দেওয়া হয়েছে। অভিযোগকে আমল না দিয়ে চন্দ্রিমাদেবী যদিও বলেন, ‘‘উনি উত্তরপ্রদেশেই বরং মন দিন। ওঁর রাজ্যে রোজ যে শিশু মারা যাচ্ছে, তার দায়িত্ব কে নেবে? উনি বরং ওই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করুন!’’

Advertisement


Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement