Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
Mob Violence

তোলা না দেওয়ায় বেধড়ক মার, মাথা ফাটল ব্যবসায়ীর

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাঁকড়ায় কাপড়ের দোকান রয়েছে সানোয়ারের। মঙ্গলবার সেখানে আসে চার-পাঁচ জন যুবক। সানোয়ারের কাছে এক হাজার টাকা তোলা চায় তারা।

Representative Image

—প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ এপ্রিল ২০২৪ ০৭:৩৯
Share: Save:

দাবি মতো টাকা দিতে না চাওয়ায় এক কাপড়ের ব্যবসায়ী ও তাঁর দুই ভাইকে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠল প্রায় ৩০-৩৫ জন দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার বাঁকড়ার মনসাডিঙি সানাপাড়ায়। বেধড়ক মারের চোটে মাথা ফাটে শেখ সানোয়ার আলি নামে ওই ব্যবসায়ীর। নাক ফাটে তাঁর এক ভাই শেখ মিরাজুদ্দিনের। দু’জনকেই ডোমজুড় গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। মারধরের পুরো ঘটনাটি ধরা পড়েছে এলাকার সিসি ক্যামেরায়। বাঁকড়া ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন সানোয়ার। যার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাঁকড়ায় কাপড়ের দোকান রয়েছে সানোয়ারের। মঙ্গলবার সেখানে আসে চার-পাঁচ জন যুবক। সানোয়ারের কাছে এক হাজার টাকা তোলা চায় তারা। ওই ব্যবসায়ী জানান, তিনি ১০০ টাকা দেবেন। তখন ওই যুবকেরা টাকা না নিয়ে সানোয়ারকে মারধর করার হুমকি দিয়ে চলে যায়। ওই ব্যবসায়ী লিখিত অভিযোগে জানিয়েছেন, বুধবার রাতে আচমকাই ৩০-৩৫ জন যুবক তাঁর দোকানে এসে অতর্কিতে হামলা চালায়। সানোয়ারের দাবি, তিনি হাজার টাকা তোলা না দেওয়াতেই এই হামলা হয়।

বৃহস্পতিবার সানোয়ার বলেন, ‘‘ওরা বেধড়ক মারধর করে আমার মাথা ফাটিয়ে দেয়। মুখে পর পর ঘুষি মারে। আমি মাটিতে পড়ে যাই।’’ দাদাকে মার খেতে দেখে দোকানের গুদামে থাকা সানোয়ারের এক ভাই শেখ মিরাজুদ্দিন ও পাশের দোকানে থাকা আর এক ভাই ছুটে আসেন। তাঁদের দু’জনকেও দুষ্কৃতীরা বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। মারের চোটে মিরাজুদ্দিনের নাক ফেটে যায়।

এই ঘটনায় বাঁকড়ার ব্যবসায়ীদের মধ্যে প্রবল আতঙ্ক ছড়িয়েছে। হাওড়া সিটি পুলিশের এক পদস্থ কর্তা জানান, অভিযোগ জমা পড়েছে। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Howrah Violence
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE