Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ভূত তাড়াতে স্কুলেই যজ্ঞ!

নিজস্ব সংবাদদাতা
চন্দননগর ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:০০
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

স্কুলে নাকি ভূতের আনাগোনা। তার জেরে স্কুলের একাধিক পড়ুয়া দুর্ঘটনাজনিত কারণে মারা গিয়েছে। তাই স্কুলে হোম-যজ্ঞ করার অনুমতি চেয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিলেন অভিভাবকদের একাংশ। ঘটনাটি চন্দননগর পুরসভা পরিচালিত একটি ইংরেজিমাধ্যম স্কুলের।

এই ঘটনায় রীতিমতো তাজ্জব গঙ্গাপাড়ের কৃষ্টি-সংস্কৃতির শহর চন্দননগর। অনেকেই বিষয়টির প্রতিবাদ করেছেন। অনেকে আবার তীর্যক মন্তব্য ছুঁড়ে দিয়েছেন। যেখানে হুগলির এক কৃতি সন্তান ইসরোর চন্দ্রযান পাঠানোয় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন, সেখানে একই জেলার একটি স্কুলের অভিভাবকেরা ভূত তাড়ানোর যজ্ঞ করতে চাইছেন।

আবার অনেকেই এই ঘটনার প্রতিবাদে নামার কথা ভাবছেন। চন্দননগর পরিবেশ অ্যাকাডেমি ইতিমধ্যেই পুর কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন। চন্দননগর পরিবেশ অ্যাকাডেমির কর্ণধার বিশ্বজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমরা পরিবেশ নিয়ে কাজ করি। কিন্তু মানসিক স্বাস্থ্য নিয়েও কাজ করার প্রয়োজন আছে। চন্দননগর শহরের শিক্ষিতের একাংশ ভূত-প্রেত তাড়াতে স্কুলে যজ্ঞ করার কথা ভাবছেন। বিজ্ঞানের যুগে এটা ভাবা যায় না। আমরা স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলব, যাতে বাচ্চাদের মধ্যে বিজ্ঞানমনস্কতা বাড়ে। স্কুলে বিজ্ঞান সংক্রান্ত ওয়ার্কশপ করাও জরুরি।’’

Advertisement

স্কুলে যজ্ঞ চাইছেন এমন এক অভিভাবক বলেন, ‘‘আমরা বহু অভিভাবকেরাই চাইছি যজ্ঞ হোক। কিন্তু এখনও অনুমতি পাইনি।’’

ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা কস্তুরী রায় বলেন, ‘‘আমার কাছে এই ধরনের বহু চিঠি আসে। কিন্তু আমরা এইসব চিঠিকে গুরুত্ব দিই না।’’

স্কুলে যজ্ঞের বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অভিভাবকদের একাংশ। তেমনই একজন অভিভাবক সুমিত দাস বলেন, ‘‘আমরা ওই যজ্ঞের প্রতিবাদে সই সংগ্রহ করছি। পুরসভাকে বিষয়টি জানাব। শুনেছি, ওই যজ্ঞের জন্য চাঁদা তোলা হচ্ছে, পুরোহিতও ঠিক হয়ে গি য়েছে। আমরা ওই স্কুলের কর্তৃপক্ষকে বলে একটি সচেতনতা শিবির করব।’’

পুর কমিশনার স্বপন কুণ্ডু অবশ্য বলেন, ‘‘স্কুলের অভিভাবকেরা কী চাইছেন এবং স্কুল কর্তৃপক্ষই কী ভাবছেন, বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়। সব পক্ষের সঙ্গে আমরা কথা বলব।’’

এই বিষয়ে চন্দননগর বিজ্ঞান মঞ্চের সদস্য সরস্বতী পোদ্দার বলেন, ‘‘আমরা বিষয়টি নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার সঙ্গে কথা বলব। চন্দননগরের বুকে এই ধরনের উদ্যোগ চিন্তার বিষয়। আমরা স্কুলে গিয়ে কী ভাবে ভূত-প্রেত, ডাইনের মত সামাজিক ব্যাধি দূর করা যায় সেই বিষয়ে কথা বলব। স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ওয়র্কশপ করব।’’

আরও পড়ুন

Advertisement