Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

তিনটি উড়ালপুল পাচ্ছে হুগলি

হুগলির ওই তিন লেভেল ক্রসিং দিয়েও ২৪ ঘণ্টায় এক লক্ষ ইউনিটের বেশি গাড়ি ও ট্রেন চলে। সেই কারণে পূর্ব রেলের সঙ্গে চুক্তি করে উড়ালপুলগুলি তৈরির

  নিজস্ব সংবাদদাতা
০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০০:০০
কাজ চলছে আদিসপ্তগ্রামে। নিজস্ব চিত্র

কাজ চলছে আদিসপ্তগ্রামে। নিজস্ব চিত্র

তিনটি এলাকাতেই জিটি রোডে লেভেল ক্রসিংয়ের জন্য যানজটের সমস্যা দীর্ঘদিনের। একবার রেলগেট বন্ধ হলে গাড়ির লম্বা লাইন পড়ে যায়। তাই ব্যান্ডেল, আদিসপ্তগ্রাম এবং পান্ডুয়ার সিমলাগড়— হুগলির ওই তিন এলাকায় তিনটি উড়ালপুল বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। ব্যান্ডেল এবং আদিসপ্তগ্রামে পুরোদমে কাজ চলছে।
নবান্ন সূত্রের খবর, কোনও লেভেল ক্রসিং দিয়ে দিনে কত গাড়ি ও ট্রেন চলাচল করছে তার হিসাব করা হয় একটি নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে। সরকারি পরিভাষায় যা ‘ট্রেন ভেহিক্যাল ইউনিট’ (টিভিইউ) নামে পরিচিত। কোনও লেভেল ক্রসিংয়ে ২৪ ঘণ্টায় টিভিইউ এক লক্ষের বেশি হলে সেখানে উড়ালপুল তৈরি করা হয়। হুগলির ওই তিন লেভেল ক্রসিং দিয়েও ২৪ ঘণ্টায় এক লক্ষ ইউনিটের বেশি গাড়ি ও ট্রেন চলে। সেই কারণে পূর্ব রেলের সঙ্গে চুক্তি করে উড়ালপুলগুলি তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
তিনটি উড়ালপুলই হবে কেন্দ্রীয় সরকারের ‘সেন্ট্রাল রোড ফান্ড’-এর টাকায়। এর মধ্যে ব্যান্ডেল এবং আদিসপ্তগ্রামের প্রকল্প দু’টি তৈরির দায়িত্বে রয়েছে রাজ্যের হাইওয়ে উন্নয়ন নিগমকে। ইতিমধ্যে নিগম কাজ শুরু করে দিয়েছে। প্রাথমিক ভাবে কাজ শেষের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে আগামী বছরের জুন মাস। সিমলাগড়ের প্রকল্পটি গড়বে পূর্ত দফতর। তারা অবশ্য কাজ শুরু করতে পারেনি।
হাইওয়ে উন্নয়ন নিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্যান্ডেল উড়ালপুলটি তৈরি করতে খরচ হচ্ছে ৩৬ কোটি টাকা। আদিসপ্তগ্রামের প্রকল্পটিতে খরচ হচ্ছে প্রায় ৬৭ কোটি টাকা। নিগমের এক কর্তা জানান, আদিসপ্তগ্রামের উড়ালপুলটি ৯০ মিটার লম্বা হবে। একটি ‘র‌্যাম্প’ করা হবে। রেলের জমিতে কোনও ‘পিলার’ করতে দেবে না রেল দফতর। তাই তুলনায় বেশি টাকা লাগবে আদিসপ্তগ্রামে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement