Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বেলেঘাটায় সিপিএম কর্মীদের ওপর হামলা, গ্রেফতার ৩ তৃণমূল কর্মী

নিজস্ব সংবাদদাতা
২০ মার্চ ২০১৬ ১৭:২৩

ভোটের প্রচারে গিয়ে সিপিএম কর্মীদের উপর হামলার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। রবিবার সকালে বেলেঘাটার লেবুগোলা বস্তির ঘটনা। ঘটনায় সিপিএমের তরফে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বেলেঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তৃণমূল অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। সিপিএম কর্মীদের উপর মারধরের ঘটনায় তিন অভিযুক্তকে এ দিন বিকেলে গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, বেলেঘাটা বিধানসভার জোট প্রার্থী রাজীব বিশ্বাসের সমর্থনে সিপিএমের কর্মীরা রবিবার সকালে লেবুগোলা বস্তি এলাকায় প্রচারে যান। অভিযোগ, সেই সময় তৃণমূলের কর্মীরা সিপিএমের প্রচারে বাধা দেন। বেলেঘাটায় প্রচার করতে দেওয়া হবে না বলে তৃণমূলের তরফে হুমকি দেওয়া হয়। হুমকি অগ্রাহ্য করে সিপিএমের কর্মীরা প্রচার শুরু করলে তৃণমূলের কর্মীরা লোহার রড নিয়ে ডিওয়াইএফআই-এর জেলা কমিটির সদস্য সন্দীপ নট্টের উপর চড়াও হন। তাঁর নাক ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এছাড়াও সিপিএম কর্মী সাগর পোদ্দার ও তপন চক্রবর্তীকে বাঁশ দিয়ে প্রহার করা হয়। আহতদের নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সন্দীপ নট্টের নাকে চারটি সেলাই করা হয়।

আহত সন্দীপ নট্ট বলেন, ‘‘সকালে লেবুগোলা বস্তি এলাকায় প্রচারে গেলে তৃণমূলের তরফে হুমকি দিয়ে জানানো হয়, বেলেঘাটা এলাকায় সিপিএমের কোনও প্রচার করা যাবে না। এরপর তাদের বাধা উপেক্ষা করে ফের প্রচার শুরু করলে আমাদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে তৃণমূলকর্মী সমীর রঞ্জন দাস, তাপস দাস, পরিতোষ মণ্ডলরা। রড, বাঁশ দিয়ে আক্রমণ করা হয়। ধেয়ে আসে কিল, চড়, ঘুষি।’’ বেলেঘাটার জোট প্রার্থী রাজীব বিশ্বাসের অভিযোগ, ‘‘তৃণমূল জোটকে ভয় পেয়েছে। ওরা আমাদের কর্মীদের মারধর করে, ভয় দেখিয়ে যতই রোখার চেষ্টা করুন না কেন, মানুষ ইতিমধ্যেই তৃণমূলের দুর্নীতির ভিডিও ফুটেজ দেখেছেন। ব্যালট বাক্সে মানুষই যোগ্য জবাব দেবেন।’’

Advertisement

সিপিএমের অভিযোগ নস্যাৎ করে বেলেঘাটার তৃণমূলপ্রার্থী পরেশ পাল জানিয়েছেন, ‘‘লেবুগোলা বস্তি এলাকায় আমাদের কোনও কর্মী কাউকে মারধর করেনি। রাজীব বিশ্বাস রাজনৈতিক ফায়দা লুঠতে মিথ্যা অভিযোগ করছেন। ধৃতদের কেউ তৃণমূলের নয়।’’ স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সলির পবিত্র বিশ্বাসের মন্তব্য, ‘‘বেলেঘাটায় অটোচালক থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সবাই তৃণমূল। যে ওয়ার্ডে বিরোধীশূন্য সেখানে সিপিএম কর্মীদের উপর মারধরের ঘটনার প্রসঙ্গ আসবে কেন?’’ এদিন ঘটনার পর সিপিএমের তরফে বেলেঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনায় তিন অভিযুক্ত সমীররঞ্জন দাস, তাপস দাস ও পরিতোষ মন্ডলকে বেলেঘাটা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement