Advertisement
১৯ মে ২০২৪
Body Recovered in New Town

অর্থ নিয়ে বচসার জেরেই কি খুন ব্যবসায়ী? নিউ টাউনে ব্যাগবন্দি দেহ উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেফতার এক

পুলিশি জেরায় গাড়ির চালক আগের রাতে যে জায়গায় গিয়েছিলেন বলে জানান, সেখান থেকেই উদ্ধার হয়েছিল দেহ। এর পরে পুলিশের সন্দেহ জোরালো হয়।

image of body stuffed in bag

নিউ টাউনে ট্রলি ব্যাগের ভিতর থেকে উদ্ধার দেহ। — নিজস্ব চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ মার্চ ২০২৪ ১২:৩৪
Share: Save:

নিউ টাউনে ট্রলি ব্যাগবন্দি দেহ উদ্ধারের ঘটনায় গ্রেফতার এক। শনিবার সন্ধ্যায় তাঁকে টেকনো সিটি থানায় এনে জেরা করা হয়। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, ব্যারাকপুর এলাকায় খুন করা হয়েছে প্রৌঢ়কে। সেখানেই থাকেন অভিযুক্ত। পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, টাকা নিয়ে ঝামেলার কারণেই খুন।

পুলিশ সূ্ত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্তের নাম সৌম্যকান্তি জানা। বয়স ৩১ বছর। তিনি এগরার বাসিন্দা। শনিবার ভোরে পটাশপুর-বালিচক রাজ্য সড়ক ধরে একটি গাড়িতে চেপে এগরার দিকে আসছিলেন সৌম্য। পশ্চিম ও পূর্ব মেদিনীপুরের সীমানা এলাকায় পটাশপুরের দেহটি সেতুর কাছে নাকা চেকিংয়ের সময় সৌম্যের গাড়ি আটকানো হয়। তাঁর গাড়ির ডিকি থেকে রক্ত গড়িয়ে পড়তে দেখেছিলেন নাকা চেকিংয়ে থাকা পুলিশকর্মীরা। এর পরেই সৌম্য ও তাঁর গাড়িচালককে আটক করা হয়। পুলিশি জেরায় গাড়ির চালক আগের রাতে যে জায়গায় গিয়েছিলেন বলে জানান, সেখান থেকেই উদ্ধার হয়েছিল দেহ। এর পরে পুলিশের সন্দেহ জোরালো হয়।

শনিবার ভোরে নিউ টাউনের টেকনো সিটি থানা এলাকার কারিগরি ভবনের পিছন দিকে পাঁচুরিয়া এলাকায় একটি নালার মধ্যে লাল রঙের ট্রলি ব্যাগ থেকে এর প্রৌঢ়ের দেহ উদ্ধার হয়। স্থানীয়েরাই প্রথম ব্যাগটি দেখতে পান। ব্যাগ থেকে রক্ত চুঁইয়ে পড়তে দেখে তাঁদের সন্দেহ হয়। খবর দেওয়া হয় পুলিশে। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, নিহতের নাম সুবোধ সরকার। বয়স ৮২ বছর। পেশায় ব্যবসায়ী। ভিন্‌রাজ্যের বাসিন্দা। সেখানকার সম্পত্তি বিক্রি করে ব্যারাকপুর থানার অন্তর্গত এলাকায় থাকতেন তিনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Murder body
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE