Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

খাবারে ছত্রাক, ছ’লক্ষ টাকা দিতে নির্দেশ

মেহবুব কাদের চৌধুরী
কলকাতা ০৪ নভেম্বর ২০১৯ ০২:২৬
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

খাবারের প্যাকেট খুলে চমকে গিয়েছিলেন এক প্রাক্তন বিচারক। ভিতরে গিজগিজ করছে পোকা। খাবার প্যাকেটবন্দি হওয়ার দিন-ক্ষণ খতিয়ে তিনি দেখেন, সব ঠিকই রয়েছে। তবুও প্যাকেটে পোকা কেন, সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন স্বপন ধর নামে ওই প্রাক্তন বিচারক। তার আগে তিনি অভিযোগ করেছিলেন ফুলবাগান থানাতেও। গত বৃহস্পতিবার স্বপনবাবুর পক্ষে রায় দিয়ে আদালত ওই খাদ্য প্রস্তুতকারক সংস্থা এবং যে দোকান থেকে তিনি প্যাকেটটি কিনেছিলেন, তাদের প্রায় ছ’লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দিয়েছে।

ফুলবাগান থানা এলাকার ক্যানাল সার্কুলার রোডের বাসিন্দা স্বপনবাবু ২০১৪ সালের ২৮ জুন বাড়ির কাছাকাছি একটি দোকান থেকে কেলগ্‌স সংস্থার তৈরি ৫৫০ গ্রাম ওজনের একটি মুসলি-র প্যাকেট কিনেছিলেন। পরের দিন ওই প্যাকেট খুলতেই তিনি দেখেন, ভিতরে পোকা ঘোরাফেরা করছে। প্যাকেটের আশপাশে ছত্রাক জন্মেছে। ওই সংস্থা ও দোকানের বিরুদ্ধে ফুলবাগান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্বপনবাবু। সেন্ট্রাল ফুড ল্যাবরেটরিতে প্যাকেটের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। ‘ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ড অথরিটি অব ইন্ডিয়া’ (এফএসএসএআই)-র রিপোর্টে প্যাকেটের ওই খাবারকে পুরোপুরি ‘আনসেফ’ বলে ঘোষণা করা হয়। এর পরেই স্বপনবাবু ক্যানাল সার্কুলার রোডের ওই দোকান-সহ মুসলি প্রস্তুতকারক সংস্থা কেলগ্‌স-এর বিরুদ্ধে রাজ্য ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে মামলা করেন।

গত ৩১ অক্টোবর রায় ঘোষণা করে রাজ্য ক্রেতা সুরক্ষা আদালত ওই খাদ্য প্রস্তুতকারক সংস্থার সমালোচনা করে জানিয়েছে, ‘‘খাবারের প্যাকেটে পোকা, ছত্রাক থাকা সংশ্লিষ্ট সংস্থার অসাধু ব্যবসা চালানোর সমান। পাশাপাশি, যে দোকান থেকে ক্রেতা প্যাকেটটি কিনেছিলেন, সেই দোকানও সমান ভাবে দোষী।’’ আদালতের বিচারক শ্যামল গুপ্ত এবং উৎপলকুমার ভট্টাচার্য তাঁদের রায়ে বলেন, ‘‘অভিযুক্ত খাদ্য প্রস্ততকারক সংস্থা স্বাস্থ্যসম্মত খাবার পরিবেশনে পুরোপুরি ব্যর্থ। ওই দূষিত খাবার বিক্রির দায় দোকানও এড়াতে পারে না।’’ আদালত রায় বেরোনোর ৪০ দিনের মধ্যে ‘কেলগ্‌স ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড’ এবং ক্যানাল সার্কুলার রোডের দোকানের মালিককে সব মিলিয়ে প্রায় ছ’লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দিয়েছে। ওই টাকার মধ্যে কনজ়িউমার ওয়েলফেয়ার ফান্ডে পাঁচ লক্ষ টাকা কেলগ্‌স ইন্ডিয়াকে জমা দিতে হবে।

Advertisement

এই রায় প্রসঙ্গে অভিযোগকারীর আইনজীবী সুব্রত মণ্ডল বলেন, ‘‘টাকা দিয়ে কেনার পরেও স্বাস্থ্যসম্মত খাবার মেলেনি। অভিযুক্ত খাদ্য প্রস্তুতকারী সংস্থার বিরুদ্ধে যত দূর যেতে হয়, যাব।’’ ওই সংস্থার তরফে এক মুখপাত্র বলেন, ‘‘রাজ্য আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ চালিয়ে জাতীয় ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে মামলা করা হবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement