Advertisement
০৫ মার্চ ২০২৪

মেয়ের বন্ধুকে ডেকে এনে ‘মার’, ধৃত বাবা ও দাদা

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগকারী যুবকের নাম তালিব হোসেন। ধৃত রেজাউল হক ওই কিশোরীর বাবা এবং রেজানুল কবীর দাদা।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদাতা
শেষ আপডেট: ৩১ জানুয়ারি ২০১৮ ০২:৩৮
Share: Save:

মাস তিনেক আগে এক কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল ঠাকুরপুকুরের এক যুবককে। এ বার ওই যুবকের পাল্টা অভিযোগের ভিত্তিতে সেই কিশোরীর বাবা ও দাদাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ওই যুবকের দাবি, তাঁকে বাড়িতে ডেকে এনে মারধর করেছেন ওই দু’জন।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগকারী যুবকের নাম তালিব হোসেন। ধৃত রেজাউল হক ওই কিশোরীর বাবা এবং রেজানুল কবীর দাদা।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবকের দাবি, রবিবার গভীর রাতে রেজাউল মেয়েকে দিয়ে ফোন করিয়ে তালিবকে বাড়িতে ডেকে পাঠান। তালিব সেখানে যেতেই ওই কিশোরীর বাবা ও দাদা তাঁকে প্রেশার কুকার ও কাঠের চেয়ার দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেন বলে অভিযোগ। তালিবের চিৎকারে ছুটে আসেন পাড়ার লোকজন। তাঁরাই ওই যুবককে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে তালিবকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
তাঁর মাথায় একাধিক সেলাই হয়েছে। সেই রাতেই তালিব ওই কিশোরীর বাবা ও দাদার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ দু’জনকে গ্রেফতার করে। তাঁদের আদালতে তোলা হলে বিচারক দু’দিন পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। ওই কিশোরীর মা কাবিরা খাতুন আবার ঠাকুরপুকুর থানায় তালিবের বিরুদ্ধে তাঁদের বাড়িতে অনধিকার প্রবেশের পাল্টা অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ তারও তদন্ত করছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পেশায় ব্যবসায়ী তালিব দাবি করেছেন, ওই কিশোরীর সঙ্গে তাঁর দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। কিন্তু মেয়েটির পরিবার তা মানতে চাইছিল না। অভিযোগ, সেই কারণেই মাস তিনেক আগে তালিবের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করেছিলেন রেজাউল। তার ভিত্তিতে পুলিশ তালিবকে গ্রেফতার করায় তিনি ২৫ দিন জেলে ছিলেন। তার পরে জামিন পান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE