Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মেয়র হয়েই কলকাতার নাগরিকদের নিজের ফোন নম্বর দিলেন ফিরহাদ

দলনেত্রীর নির্দেশ মতো, শহরকে আরও সবুজ এবং পরিচ্ছন্ন করার সঙ্কল্প নিলেন কলকাতা পুরসভার নতুন মেয়র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৯:২০
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফিরহাদ হাকিম।—ফাইল চিত্র।

ফিরহাদ হাকিম।—ফাইল চিত্র।

Popup Close

মেয়র পদে শপথগ্রহণের পর ফিরহাদ হাকিমকে প্রথম ফোনটা করলেন তিনিই। মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুভেচ্ছা জানিয়ে বললেন, নতুন মেয়র পরিষদকে ভাল করে চালাতে হবে কিন্তু...

দলনেত্রীর নির্দেশ মতো, শহরকে আরও সবুজ এবং পরিচ্ছন্ন করার সঙ্কল্প নিলেন কলকাতা পুরসভার নতুন মেয়র। সাংবাদিক সম্মেলনেই ফিরহাদ শহরের নাগরিকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, “কোথাও কোনও সমস্যা হলে সরাসরি আমাকে জানান। দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

এর পরই তিনি নিজের ফোন নম্বর (৯৮৩০০৩৭৪৯৩) জানিয়ে বলেন, “যেখানেই নোংরা দেখবেন, রাস্তা ভাঙা দেখবেন, আলো জ্বলছে না দেখবেন, এমন কি ব্রিজের ফাটলও যদি দেখতে পান, তা হলে সরাসরি আমাকে হোয়াটসঅ্যাপে জানান।”

Advertisement

আরও পড়ুন: মেয়র হলেন ফিরহাদ, ভোট বয়কট বাম-কংগ্রেসের​

দূষণ রোধে ‘আর্বান ফরেস্ট্রি’-র উপর জোর দেওয়ার কথা বলেন ফিরহাদ। তিনি জানান, “যদি কেউ নিজের জমিতে বড় বড় গাছ লাগিয়ে আর্বান ফরেস্ট্রি করতে চান, তা হলে যতটা জমিতে তিনি বাগান করবেন, সেই পরিমাণ জমির উপর ৯০ শতাংশ কর ছাড় দেওয়া হবে।”

তিনি শপথ নেওয়ার পর সোজা চলে যান মেয়রের ঘরে। চেয়ারে বসেই তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার উপর বিশ্বাস রেখেছেন। ধর্ম নয়, কর্মের জন্যে মুখ্যমন্ত্রী এই দায়িত্ব আমায় দিয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেস যাঁরা করেন, তাঁদের কাছে কর্মই আগে। আমি নিষ্ঠার সঙ্গে এই দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করব।”

ফিরহাদ মেয়র হতেই আবেগে ভেসে যান তাঁর অনুগামীরা। বিভিন্ন জায়গা থেকে ফুল এবং মিষ্টি নিয়ে মেয়রের সঙ্গে দেখা করতে আসেন তৃণমূল কর্মীরা। তাঁদের উদ্দেশে ফিরহাদ বলেন, “ফুল-মিষ্টি চাই না। যে যতটুকু পারবেন, মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করুন।”

আরও পড়ুন: সেনা পাঠাতে চাইছে দিল্লি, ‘উপহার’ ফিরিয়ে দিক মলদ্বীপ: হুঁশিয়ারি উদ্বিগ্ন চিনের​

ফিরহাদ জলাশয় রক্ষার উপরেও জোর দেওয়ার কথা বলেন এ দিন। তাঁর কথায়, “যাঁরা জলাশয়ে রক্ষা করতে এগিয়ে আসবেন, তাঁদেরও কর ছাড় দেওয়া হবে। যতটা সম্ভব আরও বেশি সবুজ করা হবে কলকাতাকে। সুন্দর শহর, পরিষ্কার শহর করবই। যাঁরা বড় বড় বহুতলে রয়েছেন, সেখানকার বর্জ্য দিয়ে যদি সার তৈরির পরিকল্পনা নেন বাসিন্দারা, তা হলে সব রকমের সাহয্য করতে তৈরি থাকবে পুরসভা।”

তিনি জানান, বন্দর এবং রেলের জায়গায়তেও বাগান করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ রকম অনেক জমি রয়েছে, সেখানে গাছ লাগিয়ে সবুজ করা সম্ভব। টালিগঞ্জ, যাদবপুর, বেহালাতে জল জমার বিষয়টিও গুরুত্ব দিয়ে দেখা হবে।

এ দিন কলকাতা পুরসভায় মেয়র নির্বাচনে ভোট দেন ১২৬ জন। ১২১টি ভোট পেয়েছেন ফিরহাদ। বিজেপি-র মেয়র প্রার্থী মীনাদেবী পুরোহিত পেয়েছেন ৫টি ভোট। ভোট বয়কট করেন বাম এবং কংগ্রেস কাউন্সিলররা।

পুরসভায় এসে এ দিন ফিরহাদকে ভোট দিয়ে যান সদ্য প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement