Advertisement
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
School Reopening

School Reopening: রাস্তার শব্দে কান পাতা দায়, মাইক নিয়ে পাড়ায় ক্লাস

এ দিন শ্যামবাজারের কাছে শ্যাম পার্কে চলছিল এভি স্কুলের চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস। যে দু’জন পড়াচ্ছেন, তাঁদের হাতে মাইক।

ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ০৭:২২
Share: Save:

রাস্তায় হর্ন দিচ্ছে বাস। চার দিকে নানা রকম শব্দ। কাছেই মাইক বাজছে কোনও অনুষ্ঠানে। অথচ, এর মধ্যেই চলছে পাড়ায় শিক্ষালয়। শিক্ষকেরা তাই পড়ানোর জন্য হাতে তুলে নিয়েছেন মাইক। আবার পড়ুয়াদের প্রশ্ন থাকলে তারাও মাইকেই তা বলছে। ব্যস্ত এলাকার পার্কে বা খোলা জায়গায় যে সব পাড়ায় শিক্ষালয় চলছে, সেখানে এ ভাবেই হচ্ছে পড়াশোনা। তবে বৃহস্পতিবার সকালের বৃষ্টিতে কোথাও কোথাও খোলা আকাশের নীচে চলা পাড়ার শিক্ষালয়ে কিছুটা তাল কেটেছে।

এ দিন শ্যামবাজারের কাছে শ্যাম পার্কে চলছিল এভি স্কুলের চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস। যে দু’জন পড়াচ্ছেন, তাঁদের হাতে মাইক। চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষিকা অনিন্দিতা সাহা বললেন, “এত দিন পরে স্কুল খুলেছে। পড়ুয়াদেরও খুব উৎসাহ। কিন্তু খালি গলায় পড়ালে কেউ শুনতে পাচ্ছে না। তাই মাইক ব্যবহার করা হচ্ছে।”

ওই পাড়ায় শিক্ষালয় সাজানো হয়েছে বেলুন দিয়ে। শিক্ষকেরা জানালেন, এই ক’দিনে দেওয়াল পত্রিকাও বার করে ফেলেছে পড়ুয়ারা। অভিভাবকেরা জানালেন, শ্যাম পার্কে ক্লাস হবে শোনার পর থেকে চারপাশের হট্টগোল নিয়ে তাঁরাও চিন্তায় ছিলেন। কলকাতায় সর্বশিক্ষা মিশনের চেয়ারম্যান কার্তিক মান্না বলেন, “শুধু শ্যাম পার্ক নয়, শহরের বেশ কিছু ব্যস্ত রাস্তা সংলগ্ন পার্কে পাড়ায় শিক্ষালয় চলছে। সেখানে শিক্ষকেরা মাইকে পড়াচ্ছেন।”

বাগবাজার সর্বজনীনের মাঠে যে পাড়ায় শিক্ষালয় চলছে, সেখানকার শিক্ষকেরাও মাইক ব্যবহার করছেন। বাংলার পাশাপাশি হিন্দি মাধ্যমের পড়ুয়ারাও ক্লাস করছে। আবার শোভাবাজার রাজবাড়ি সংলগ্ন গাছতলার শিক্ষালয়ে এসেছে পুরসভার স্কুলের পড়ুয়ারাও। অভিভাবকদের অনেকেরই অবশ্য প্রশ্ন, ক্লাসরুম আবার কবে খুলবে?

বেসরকারি স্কুলেও চলছে পাড়ায় শিক্ষালয়। যাদের নিজস্ব মাঠ নেই, তারা স্কুলের সামনে খোলা কোনও জায়গায় চালু করেছে ক্লাস। সেখানেও শিক্ষকদের হাতে মাইক। ভিআইপি রোডের ধারে রঘুনাথপুরে ন্যাশনাল ইংলিশ হাইস্কুলের পাড়ায় শিক্ষালয় চলছে। শিক্ষকদের হাতে কর্ডলেস মাইক। অত আওয়াজেও অবশ্য মনঃসংযোগে ব্যাঘাত ঘটছে না পড়ুয়াদের। সপ্তম শ্রেণির এক পড়ুয়া বলল, “সামনেই আমাদের বার্ষিক পরীক্ষা। কিছু বিষয়ে খটকা ছিল। সেগুলি জেনে নিতে এই ক্লাসের খুব দরকার ছিল।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.