Advertisement
০১ অক্টোবর ২০২২
Kolkata International Film Festival 2022

KIFF 2022: কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চ থেকে কার্যত আসানসোলের বিজয়ভাষণ শত্রুঘ্নের

কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শত্রুঘ্ন জানান, এটি কোনও রাজনৈতিক মঞ্চ নয়। তাই কোনও রাজনৈতিক দলের নাম করবেন না।

চলচ্চিত্র উৎসবে শত্রুঘ্ন।

চলচ্চিত্র উৎসবে শত্রুঘ্ন। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০২২ ১৯:২৫
Share: Save:

উপলক্ষ ছিল, কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান অতিথির বক্তৃতা। আসানসোল লোকসভা উপনির্বাচনে সদ্য জয়ী শত্রুঘ্ন সিন্হা সেই মঞ্চ থেকে কার্যত দিলেন বিজয়ভাষণ।

সোমবার ২৭তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান অতিথি শত্রুঘ্ন তাঁর বক্তৃতার গোড়াতেই আসানসোলে লোকসভার উপনির্বাচনে তাঁকে তৃণমূলের প্রার্থী করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, ‘‘আমায় সুযোগ দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। আসানসোলবাসীর জন্য কাজ চ্যালেঞ্জ নিলাম।’’ এর পরেই তাঁর মন্তব্য, ‘‘আমি জানি এটা কোনও রাজনৈতিক মঞ্চ নয়। তাই নির্দিষ্ট ভাবে কোনও রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তিত্বের নাম করব না।’’

বিহারের পটনাসাহিসেবের প্রাক্তন বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্নকে উপনির্বাচনের প্রচারে ‘বহিরাগত’ বলেছিলেন বিরোধীদের একাংশ। কার্যত সেই অভিযোগের জবাব দিয়ে ‘বিহারিবাবুর’ দাবি, ‘‘বাংলার সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের যোগাযোগ।’’ পরিচালক গৌতম ঘোষের ছবিতে অভিনয়ের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলিউড অভিনেতা শত্রুঘ্ন বলেন, ‘‘আমি আড়াইশোর বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছি। কিন্তু সবচেয়ে বেশি শিখেছি ‘অন্তর্জলি যাত্রা’য় কাজ করতে গিয়ে। গৌতম ঘোষ আমার গুরু।’’

সত্যজিৎ রায় এবং ঋত্বিক ঘটকের ছবিতে অভিনয় না করার জন্য তাঁর মনে এখনও আক্ষেপ রয়েছে বলেও জানিয়েছেন শত্রুঘ্ন। উৎসবে হাজির সত্যজিৎ-পুত্র সন্দীপের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘আমি মানিকদার এক জন ভক্ত ছিলাম, আছি এবং আজীবন থাকব।’’ পুণের ‘ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট’ (এফটিআইআই)-এর প্রাক্তনী শত্রুঘ্নের বক্তৃতায় এসেছে তাঁর শিক্ষক তথা আর এক কিংবদন্তী বাঙালি চলচ্চিত্র পরিচালক মৃণাল সেনের কথাও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.