Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
Kolkata fire

৩ তলায় অফিস, ১২ তলায় লিফ্‌টের ভিতরে উদ্ধার রেলের ডেপুটি সিসিএম ও রক্ষীর দেহ

দমকলের তদন্তকারী অফিসারদের সূত্রে খবর, লিফটের মধ্যে আটকে ঝলসে, দমবন্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন ডেপুটি সিসিএম ও তাঁর রক্ষী।

আগুন নেভানোর চেষ্টায় দমকল কর্মীরা

আগুন নেভানোর চেষ্টায় দমকল কর্মীরা নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ মার্চ ২০২১ ০২:৪৫
Share: Save:

তাঁর অফিস ৩ তলায়। স্ট্র্যান্ড রোডে পূর্ব রেলের কয়লাঘাট ভবনের অগ্নিকাণ্ডে পূর্ব রেলের সেই আধিকারিকের মৃতদেহ উদ্ধার হল ১২ তলায়। একটি লিফ্‌টের মধ্যে ডেপুটি চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার (সিসিএম) পার্থসারথি মণ্ডল এবং তাঁর রক্ষী সঞ্জয় সাহানির দেহ। অন্য লিফ্‌টে মেলে ৪ দমকলকর্মী-সহ ৭ জনের দেহ।

দমকলের তদন্তকারী অফিসারদের সূত্রে খবর, লিফটের মধ্যে আটকে ঝলসে, দমবন্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন ডেপুটি সিসিএম ও তাঁর রক্ষী। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার আগে মৃত্যুর কারণ নিয়ে নিশ্চিত করে তাঁরা মন্তব্য করতে নারাজ। অনেকগুলি সম্ভাবনা উঠে এলেও কোনও কিছুই নিশ্চিত নয়।

পার্থসারথি বসতেন কয়লাঘাট ভবনের ৩ তলায়। তবে অফিসের কাজে সর্বত্রই যাতায়াত করেতে হত তাঁকে। হতে পারে সোমবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের সময় কোনও কাজে ১২ তলায় গিয়েছিলেন তিনি। এটাও হতে পারে যে, আগুন লাগার আগে থেকেই তিনি অফিসের কাজে ১২ বা ১৩ তলায় ছিলেন। উপরে ওঠার সময় তিনি অগ্নিকাণ্ডের খবর জানতেন না, এমন সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। আগুন দেখে তাড়াহুড়ো করে লিফ্‌টে নামার চেষ্টা করেন। অথবা লিফ্‌টে উপরে ওঠার পর আর সেখান থেকে বেরোতেই পারেননি। যান্ত্রিক ত্রুটিতে বিকল হয়ে যায় লিফ্‌ট। ফলে লিফটের দরজাও খুলতে পারেননি। ঘটনা পরম্পরা যাই হোক, ডেপুটি সিসিএম এবং তাঁর রক্ষীকে আগুনের কাছে যে কার্যত অসহায় আত্মসমর্পণ করতে হয়েছে, তা এক প্রকার নিশ্চিত দমকলকর্মীরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE