Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

‘ঘুষ নিয়ে সঠিক তদন্ত করুন’, ট্যাংরায় পুলিশের বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:৫০
টাকা হাতে প্রতিবাদ গোবিন্দ খটিক লেনের বাসিন্দাদের। — নিজস্ব চিত্র

টাকা হাতে প্রতিবাদ গোবিন্দ খটিক লেনের বাসিন্দাদের। — নিজস্ব চিত্র

‘ঘুষ’ নিয়ে মামলা লঘু করে দেখাচ্ছে পুলিশ। এই অভিযোগ তুলে এ বার ‘সঠিক তদন্ত’-এর জন্য ঘুষই দিতে চাইছেন ট্যাংরার গোবিন্দ খটিক লেনের বাসিন্দারা।

যত সময় গড়াচ্ছে ততই জল ঘোলা হচ্ছে ট্যাংরা-কাণ্ডে। বধূকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পুলিশ উড়িয়ে দেওয়ার পর থেকেই ক্ষোভে ফুঁসছিলেন এলাকার বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন তাঁরা। হাতে নানা অঙ্কের নোট নিয়ে অভিনব প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন অনেকে। তাঁদের দাবি, এ বার ‘ঘুষ’ নিয়েই ঘটনার সঠিক তদন্ত করুক পুলিশ।

কারও হাতে দশ টাকার নোট। কারও হাতে একশো বা পাঁচশো। সকলেই পুলিশকে ‘ঘুষ’ দিতে চান। এ ছবি ট্যাংরার গোবিন্দ খটিক লেনের। কেন এ ভাবে পুলিশকে ‘ঘুষ’দিতে চাইছেন তাঁরা? বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, অপহরণের ঘটনাকে নিছক দুর্ঘটনা বলে মামলার মোড় ঘোরানোর চেষ্টা করছে পুলিশ। তাঁদের আরও অভিযোগ, টাকার বিনিময়ে অভিযুক্তদের আড়াল করার চেষ্টাও করেছে পুলিশ। তাই সঠিক তদন্তের জন্য তাঁরাও এ বার পুলিশকে ‘ঘুষ’ দিতে চান। এ দিন সকাল থেকেই হাতে নানা অঙ্কের নোট নিয়ে এ ভাবেই অভিনব প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন এলাকার মহিলা-পুরুষ।

Advertisement

আরও পড়ুন: ট্যাংরা কাণ্ডে অপহরণের চেষ্টা হয়েছে, মানতে চাইছে না পুলিশ!

এ দিন সকাল থেকে রাস্তায় জলের ড্রাম ফেলে অবরোধও শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তার ফলে এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দেয়। অপহরণের চেষ্টা ও শ্লীলতাহানির ধারা ওই মামলায় না জোড়া হলে অবরোধ চলবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। এ দিন ঘটনাস্থলে পুলিশ কর্মীরা পৌঁছলে বিক্ষোভ চরম আকার ধারণ করে। পুলিশকর্মীদের হাতে জোর করে টাকা গুঁজে দেওয়ার চেষ্টা করেন স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকে। এ দিকে যাঁর সঙ্গে এ ঘটনা ঘটেছিল, সেই মহিলাও বলছেন, ‘‘যদি অপহরণের চেষ্টা না হয়ে থাকে তা হলে কেন পুলিশের কাছে এসব বলে নিজের বদনাম করতে যাব। পুলিশ মিথ্যে কথা বলছে।’’

আরও পড়ুন: রাতের যান আতঙ্কে কি নয়া সংযোজন অ্যাম্বুল্যান্স

মঙ্গলবার রাতে ট্যাংরা গোবিন্দ খটিক লেন এলাকায় একটি বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার সময় এক মহিলাকে একটি অ্যাম্বুল্যান্সে জোর করে তুলে নেওয়ার চেষ্টা হয়। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে অ্যাম্বুল্যান্সের ধাক্কায় নিহত হন ওই মহিলার শ্বশুর উজ্জ্বল প্রামাণিক (নাম পরিবর্তিত)। ট্যাংরা থানাতেও সেই অভিযোগ জমা পড়ে। কিন্তু পুলিশি তদন্তে উঠে আসে ভিন্ন কথা। ওই ঘটনায় ইতিমধ্যেই আব্দুর রহমান এবং তাজউদ্দিন নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে তাদের বিরুদ্ধে স্রেফ ৩০৪ ধারায় অনিচ্ছাকৃত ভাবে মৃত্যু ঘটানোর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিয়ের রাতে অঘটন, মেসোর মৃত্যু মানতেই পারছেন না নবদম্পতি

কিন্তু পুলিশের এই তত্ত্ব খারিজ করে দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। এর প্রতিবাদেই এ দিন সকাল থেকে পথ অবরোধ শুরু করেন তাঁরা।

আরও পড়ুন

Advertisement