×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

ধৃতের বাড়িতে উদ্ধার চুরির গয়না

নিজস্ব সংবাদদাতা
১২ জানুয়ারি ২০২০ ০২:০৫
প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

দক্ষিণ কলকাতার একটি সোনার দোকান থেকে চুরির অভিযোগে ওই দোকানেরই এক কর্মীকে ৬ জানুয়ারি গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। শুক্রবার সঞ্জীব চক্রবর্তী নামে ওই কর্মীর দমদমের বাড়ি থেকে উদ্ধার হল চুরি যাওয়া সেই সোনার গয়না।

পুলিশ জানায়, ভবানীপুরের ওই দোকানে ৫ জানুয়ারি মাসের মজুত গয়না মেলাতে গিয়ে নজরে আসে শো-কেসে রাখা সোনার হারের বদলে নকল দু’টি হার ও একটি আংটি রাখা রয়েছে। দোকান কর্তৃপক্ষ ওই দিনই ভবানীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।

সঞ্জীবের কথায় অসঙ্গতি মেলে। একেক বার একেক রকম কথা বলছিলেন তিনি। তাঁকে ৬ জানুয়ারি গ্রেফতার করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা শুরু করেন তদন্তকারীরা। কিন্তু জেরায় তিনি প্রথমে কিছুই স্বীকার করেননি। এর পরেই দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখা শুরু হয়। কিন্তু ফুটেজের অবয়ব ছিল অস্পষ্ট। ফলে সেখানেও কিছু মিলছিল না। প্রথম দফার পুলিশি হেফাজতের মেয়াদ ফুরনোর পরে ৯ জানুয়ারি সঞ্জীবকে দ্বিতীয় দফায় পুলিশি হেফাজতে নিয়ে জেরা করা শুরু করেন তদন্তকারীরা।

Advertisement

আরও পড়ুন: মোদী বিরোধী বিক্ষোভে সড়ক-পাতালে চরম দুর্ভোগ, নাজেহাল শহরবাসী

সেই জেরার মুখে ওই কর্মী শুক্রবার চুরির কথা স্বীকার করে নেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। তিনিই শো-কেসে থাকা সোনার দু’টি হার ও একটি

আংটি সরিয়ে নকল গয়না রেখে দিয়েছিলেন। নকল গয়নাই ক্রেতাদের দেখানো হয়। গয়নার নকশা ক্রেতার পছন্দ হলে তবেই তাঁকে আসল গয়না বিক্রি করা হয়।

ওই কর্মী জেরায় আরও স্বীকার করেন, তিনি তাঁর দমদমের রাজেন্দ্র গুহ রোডের বাড়িতে ছবির ফ্রেমের পিছনে একটি হার লুকিয়ে রেখেছেন। অন্য হার ও আংটি বন্ধক রেখে টাকা তুলে নিয়েছেন। ওই রাতেই সব গয়না উদ্ধার করেছেন তদন্তকারীরা।

Advertisement