Advertisement
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Agitation at egra

ধান কেনায় কারচুপির নালিশ, কৃষক বাজারে বিক্ষোভ

কৃষকেরা আগে থেকেই ধানের বস্তা ওজন করে আনেন। পরে কৃষক বাজারেও সরকারি ডিজিট্যাল যন্ত্রে ধানের বস্তা ওজন করা হয়।

কৃষক বাজারে বিক্ষোভ।

কৃষক বাজারে বিক্ষোভ। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
এগরা শেষ আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৮:০০
Share: Save:

কৃষক বাজারে সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনায় কারচুপি করার অভিযোগ উঠল। সোমবার এগরা-১ ব্লক কৃষক বাজারের ওই ঘটনায় বিক্ষোভ দেখালেন কৃষকেরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে যেতে হয় মহকুমাশাসককে।

এগরা-১ কৃষক বাজারে খাদ্য দফতরের উদ্যোগে সরকারি সহায়ক মূল্যে কৃষকদের থেকে ধান ক্রয় করা হচ্ছে। অনলাইনে নাম নথিভুক্তের পরে এ দিন এগরা, কুদি-সহ অন্য এলাকার কৃষকেরা ধান নিয়ে বাজারে আসেন। কৃষকেরা আগে থেকেই ধানের বস্তা ওজন করে আনেন। পরে কৃষক বাজারেও সরকারি ডিজিট্যাল যন্ত্রে ধানের বস্তা ওজন করা হয়। এ দিন সেই যন্ত্রে ধান ওজন করতে প্রতি বস্তা পিছু প্রায় ৬০ কেজি ধান কম দেখায় প্রায় প্রত্যেক কৃষকের। এতে তাঁদের সন্দেহ হয়। বাইরে থেকে নতুন একটি যন্ত্রে ধান ওজন করতেই গন্ডগোলের বিষয়টি ধরা পড়ে।

এর রেই কৃষক বাজারের যন্ত্রে কারচুপির অভিযোগে কৃষকেরা বিক্ষোভ দেখান। খাদ্য দফতরের এক কর্মীকে অফিসের মধ্যে আটকে রাখা হয়। মনীন্দ্রনাথ শীট নামে এক চাষি বলেন, ‘‘বাড়ি থেকে প্রত্যেকে আমরা ধান ওজন করে কৃষক বাজারে নিয়ে এসেছি। এখানে সরকারি বাটখারায় সেই ধান ওজনে কমে যাচ্ছে। সরকারি যন্ত্রে কেন ওজনে কমছে, তা জানতে চেয়ে বিক্ষোভ দেখানো হয়।’’

বিক্ষোভের জেরে এ দিন ধান বিক্রি বন্ধ হয়ে পড়ে। ঘটনাস্থলে আসে এগরা থানার পুলিশ। পরে কৃষক বাজারের অদূরে থাকা মহকুমাশাসকের অফিসে গিয়ে অভিযোগ জানান চাষিরা। মহকুমাশাসকের নির্দেশে মহকুমা খাদ্য আধিকারিক এবং অন্য কর্মীরা কৃষক বাজারে যান। নতুন যন্ত্রে ওজন করে ফের ধান বিক্রি শুরু হয়। এগরার মহকুমাশাসক মনজিৎ কুমার যাদব বলেন, ‘‘কৃষক বাজারে ওজন নিয়ে সমস্যা হয়েছিল। কৃষকদের অভিযোগে ভিত্তিতে সেই সমস্যা সমাধান করা হয়েছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE