×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

অযোধ্যা পাহাড়ের পর ঝাড়গ্রামের গ্রামে মাওবাদী পোস্টারে ভোট বয়কটের ডাক

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঝাড়গ্রাম ০২ মার্চ ২০২১ ১৪:৩৫
ঝাড়গ্রামে মাওবাদী পোস্টার।

ঝাড়গ্রামে মাওবাদী পোস্টার।
নিজস্ব চিত্র।

বেজে গিয়েছে নির্বাচনের দামামা। নির্ঘণ্টও প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যেই মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টার পড়ল ঝাড়গ্রাম জেলায়। মঙ্গলবার সকালে ঝাড়গ্রাম জেলার বিনপুর থানার মালাবতী, পলাশবনী, চিয়ানবেড়া-সহ বিভিন্ন গ্রামের রাস্তায়, বাড়ির দেওয়ালে এবং গাছে এবং বেলপাহাড়ি থানার বিভিন্ন গ্রামে মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টার দেখা গিয়েছে। সেই সব পোস্টারে ভোট বয়কটের পাশাপাশি রাজনৈতিক দলগুলির বিরুদ্ধেও লেখা হয়েছে। এর জেরে ঝাড়গ্রামের ওই সব গ্রামাঞ্চলে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

ওই সব পোস্টারে লাল কালিতে লেখা রয়েছে, ‘বিজেপি হাত গুটাও’, ‘তৃণমূল কংগ্রেস দূর হঠাও’। তার নীচে লেখা, সিপিআই (মাওবাদী)। ভোট বয়কটের ডাক দিয়েও পড়েছে পোস্টার। সেখানে লেখা হয়েছে, ‘জঙ্গলমহল, ভোট বয়কট করো’। ২০১১ সালের পর থেকে মাওবাদী প্রভাব কমেছে জঙ্গলমহল এলাকায়। যদিও ভোটের আগে এই পোস্টার নিয়ে তৈরি হয়েছে চাঞ্চল্য।

মঙ্গলবার থেকে ঝাড়গ্রাম জেলায় প্রথম দফার নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। ২৭ মার্চ ঝাড়গ্রাম জেলার ৪টি বিধানসভা কেন্দ্রে নির্বাচন হবে। ওই সব আসনে নির্বাচনের জন্য মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে মনোনয়নপত্র জমা নেওয়ার কাজ। এই পরিস্থিতিতে মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টার নির্বাচনী উত্তাপকে অন্য মাত্রা দিয়েছে।

Advertisement

পুলিশ গিয়ে ইতিমধ্যেই পোস্টারগুলি উদ্ধার করেছে। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই বিনপুর থানার এড়গোদাতে বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ-সহ ৬ জন বিজেপি নেতার মাথা চেয়ে মাওবাদী নামাঙ্কিত দেওয়াল লিখন উদ্ধার হয়েছিল। মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টারকে নিয়ে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল, বিরোধী দল বিজেপি, সিপিএম, কংগ্রেস মুখ খুলতে নারাজ। তবে পোস্টার কারা লাগিয়েছে, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে জেলা পুলিশ। ঝাড়গ্রামের পাশাপাশি পুরুলিয়া জেলার অযোধ্যা পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় গত ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রায়শই মাওবাদী নামাঙ্কিত পোস্টারের দেখা মিলছে। অযোধ্যা পাহাড়ে ‘ঘাঁটি বাঁধা’র কথা ঘোষণা করেও মাওবাদী পোস্টার পড়েছিল সম্প্রতি।

Advertisement