Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪

ভোট মিটতেই ফিরলেন সবংয়ের ওসি

নির্বাচন কমিশনের কোপে তাঁকে সরতে হয়েছিল। জেলার পুলিশ সুপার ফিরে আসার পরে এ বার পুনর্বহাল হলেন সবং থানা পুরনো ওসি-ও। বৃহস্পতিবার রাতে সবং থানার ওসির দায়িত্বে ফিরেছেন ননীগোপাল দত্ত।

সবংয়ের ওসি ননীগোপাল দত্ত।

সবংয়ের ওসি ননীগোপাল দত্ত।

নিজস্ব সংবাদদাতা
খড়্গপুর শেষ আপডেট: ২৮ মে ২০১৬ ০১:৩০
Share: Save:

নির্বাচন কমিশনের কোপে তাঁকে সরতে হয়েছিল। জেলার পুলিশ সুপার ফিরে আসার পরে এ বার পুনর্বহাল হলেন সবং থানা পুরনো ওসি-ও।

বৃহস্পতিবার রাতে সবং থানার ওসির দায়িত্বে ফিরেছেন ননীগোপাল দত্ত। গত ৪ মে নির্বাচন কমিশন তাঁকে সরিয়ে জোরাগেড়িয়া থানার ওসি শুভাশিস দত্তকে সবংয়ের দায়িত্ব দিয়েছিল। ননীগোপাল ফেরায় শুভাশিসও জোরাগেড়িয়া থানার ওসি-র দায়িত্বে ফিরেছেন।

গত ১৭ মার্চ নির্বাচন কমিশনের কোপেই সরতে হয়েছিল সবংয়ের ওসি অখিলেশ সিংহকে। তারপর ২২ মার্চ দায়িত্ব নেন ননীগোপাল। কিন্তু সবংয়ে নির্বাচনের মুখে ৮ এপ্রিল এলাকায় তৃণমূলকর্মী জয়দেব জানা খুন হয়ে যান। সেই ঘটনায় পুলিশের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলে কংগ্রেস। কারণ, ওই খুনের মামলায় কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভুঁইয়া, ব্লক কংগ্রেস সভাপতি অমল দাস-সহ বেশ কয়েকজন কংগ্রেস নেতার নাম জড়িয়েছিল। নির্বাচন পরবর্তী সময়েও সবংয়ে হিংসা চলতে থাকায় কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ জানানো হয়। তারপরই গত ৪ মে পুলিশ লাইনে পাঠানো হয় ননীগোপালকে।

ভোট-পর্ব মিটতেই পুরনো পুলিশ আধিকারিকদের স্বপদে ফেরানো শুরু হয়েছে। জেলার পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ দায়িত্বে ফিরছেন বলে ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। এ বার সবংয়ের ওসি ননীগোপালও দায়িত্বে ফিরলেন।

এ দিকে, কংগ্রেস ও বামেদের পক্ষ থেকে নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করার দাবি জানানো হয়েছে সবংয়ের ওসিকে। কংগ্রেসের সবং ব্লক সাধারণ সম্পাদক স্বপন মাইতি বলেন, “নির্বাচনের আগে তৃণমূলকর্মী খুনে যে ভাবে আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছিল তাতে আমরা ওসির ওপরে ক্ষুব্ধ হয়েছিলাম। আশা করব উনি আগামী দিনে নিরপেক্ষতা বজায় রাখবেন।” নির্বাচনের পরে সবংয়ে কংগ্রেস কর্মীদের বন্ধ দোকান খোলার ব্যবস্থা করার আবেদন ওসিকে জানিয়েছেন তিনি। আর কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভুঁইয়া বলেন, “প্রশাসন মনে করেছে ওই ওসিকে দিয়ে ভাল কাজ হবে তাই ফিরিয়ে এনেছে। ওঁর আগামী দিনের কাজই সব প্রমাণ করবে।” আর সবংয়ে ফিরে ওসি ননীগোপাল বলছেন, “নির্দেশ পেয়ে সবংয়ে থানায় যোগ দিয়েছি। আর কিছু বলব না।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Assembly Election 2016
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE