Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Suprakash Giri

ষড়যন্ত্রেই হার, সুপ্রকাশের পোস্ট বিতর্ক

সুপ্রকাশ কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধানের পাশাপাশি যুব- তৃণমূলের সাংগঠনিক জেলা সভাপতি। বলাগেড়িয়া কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ক এবং কাঁথি মহকুমা ক্রীড়া সংস্থার মাথায় রয়েছেন তিনি।

Suprakash Giri

সুপ্রকাশ গিরি। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কাঁথি শেষ আপডেট: ১২ জুন ২০২৪ ০৭:৪৭
Share: Save:

কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রে দলীয় প্রার্থী উত্তম বারিকের পরাজয়ের জন্য কারামন্ত্রী তথা রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরিকে দায়ী করেছে তৃণমূলের একাংশ। গত মঙ্গলবার লোকসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার ঠিক এক সপ্তাহের মাথায় এ বিষয়ে মুখ খুললেন অখিল-পুত্র তথা কাঁথির পুরপ্রধান সুপ্রকাশ গিরি। সমাজমাধ্যমে করা পোস্টে সুপ্রকাশ দাবি করেছেন, ষড়যন্ত্র করে জেলায় তৃণমূলকে হারানো হয়েছে। এবং এই ষড়যন্ত্রের পেছনে সরাসরি নন্দীগ্রামের বিধায়ক তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে দায়ী করেছেন তিনি। কিন্তু, এতদিন বাদে কেন তিনি 'ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব' প্রকাশ্যে আনছেন, তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে।

সুপ্রকাশ কাঁথি পুরসভার পুরপ্রধানের পাশাপাশি যুব- তৃণমূলের সাংগঠনিক জেলা সভাপতি। বলাগেড়িয়া কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাঙ্ক এবং কাঁথি মহকুমা ক্রীড়া সংস্থার মাথায় রয়েছেন তিনি। গত মঙ্গলবার লোকসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর থেকে এত দিন প্রকাশ্যে তিনি কোনও মন্তব্য করেননি। সমাজমাধ্যমেও নিষ্ক্রিয় ছিলেন তিনি। মঙ্গলবার সকালে সমাজমাধ্যমে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকার সুপ্রকাশ পোস্ট করেন। এবং সেই সূত্র ধরে সুপ্রকাশ লেখেন, "রেজাল্ট বেরোনোর আগেই রেজাল্ট আউট। আগেও বলেছি, এখনও বলছি, এটা ষড়যন্ত্র। ষড়যন্ত্র করে আমাদের জেলায় হারানো হয়েছে। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা আমাদের জেলার ফলাফল সম্পর্কে যা যা বলেছেন, হুবহু মিলেছে।"

 সুপ্রকাশের পোস্ট।

সুপ্রকাশের পোস্ট।

প্রসঙ্গত, কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রে নিজের পরাজয়ের জন্য অখিল গিরির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছেন তৃণমূলের প্রার্থী নিজেই। দিন কয়েক আগে কালীঘাটে লোকসভা ভোটে জয়ী এবং পরাজিত প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠক ডেকেছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তমলুকের প্রার্থী দেবাংশু ভট্টাচার্যের সমালোচনা করলেও, কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী উত্তমের প্রশংসা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপরেই মন্ত্রী অখিল এবং তাঁর পুত্র সুপ্রকাশের' ডানা ছাঁটা' হতে পারে বলে দলের অন্দরে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রে খারাপ ফলাফলের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে পর্যালোচনার আশ্বাস দিয়েছিলেন রামনগরের বিধায়ক তথা রাজ্যের কারামন্ত্রী অখিল গিরি। এ বার ‘ড্যামেজ কন্ট্রোল’-এর জন্য ছেলে সুপ্রকাশও ময়দানে নেমেছেন বলে অনেকে মনে করছেন।

এ ব্যাপারে উত্তম বারিক বলছেন," কী কারণে খারাপ ফলাফল তা দলের শীর্ষ নেতৃত্ব অনুসন্ধান করছে। কে, কী বলছেন তা নিয়ে পাল্টা মন্তব্য করা অনুচিত।আগামী দিনে আমরা যাতে ভাল ফলাফল করতে পারি, তার জন্য দলের নির্দেশ মেনে প্রস্তুতি নেব।"

আর সুপ্রকাশের পোস্ট-কে কটাক্ষ করে দক্ষিণ কাঁথির বিধায়ক তথা বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি অরূপ কুমার দাস বলেছেন,"বিজেপিকে ষড়যন্ত্র করে নির্বাচনে জিততে হয় না। নিখুঁত পরিকল্পনা করে এগিয়ে ছিলাম। আসলে তৃণমূল যে মেদিনীপুরের মানুষের মনের কথা বুঝতে ব্যর্থ হয়েছে তা সুপ্রকাশ আরেক বার স্পষ্ট করে দিয়েছেন।"

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Suprakash Giri TMC
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE