Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

অবরোধে শামিল তৃণমূলও, আজ মিছিলে শুভেন্দু

আজ, রবিবার পরিবহণমন্ত্রী তথা দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীর মেদিনীপুরে এসে নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় মিছিল করার কথা।

নিজস্ব প্রতিবেদন 
১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ ০১:১৬
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

নতুন নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় শনিবার পথ অবরোধ হল গড়বেতায়। জেলা তৃণমূল সভাপতি আন্দোলনের নামে কোথাও রাস্তা অবরোধ করা যাবে না বলে জানালেও সেই অবরোধে তৃণমূলকেও দেখা গেল।

এ দিন সকালে গড়বেতার ধাদিকা-কল্যাণচক রাজ্য সড়কের উপরে বোষ্টম মোড় ও হেতোশোল মোড়ের আশেপাশের ৮-৯টি গ্রামের মানুষ জড়ো হয়ে অবরোধ শুরু করেন। দু’টি জায়গাতেই টায়ার জ্বালানো হয়। এর ফলে গড়বেতার সঙ্গে হুগলি জেলার যোগাযোগের অন্যতম এই রাস্তায় যানজট তৈরি হয়। অবরোধকারীদের কয়েকজনের হাতে দেখা গিয়েছে জাতীয় পতাকা। ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ ও পঞ্চায়েত সমিতির কর্তারা। বেলা ১২টা নাগাদ অবরোধ ওঠে। স্বাভাবিক হয় যানবাহন চলাচল। নতুন নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় সন্ধ্যায় ঘাটালে পথ অবরোধ করে তৃণমূল। এ দিন ঘাটালের বরদা চৌকান এলাকায় মিছিল করে তারা। এখানেও রাস্তায় টায়ার জ্বালানো হয়। ঘাটাল-চন্দ্রকোনা এবং বরদা চৌকান-খড়ার রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে যায়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। জেলা নেতৃত্বের নির্দেশ অমান্য করে অবরোধ হল কেন? অবরোধের নেতৃত্বে থাকা তৃণমূল নেতা বিকাশ করের দাবি, ‘‘সেই ভাবে কোনও অবরোধ হয়নি। মিছিলের জন্যই রাস্তায় যানজট হয়েছিল।’’ শনিবার বিকেলে দাঁতন ২ ব্লকের খণ্ডরুইতেও মিছিল করে তৃণমূল। সেখানে স্থানীয় গ্রাম কমিটির লোকজনও যোগ দিয়েছিল।

নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় এ দিন হাওড়ায় সাঁতরাগাছিতেও বিক্ষোভ হয়। সেখানে ঘাটাল-হাওড়া রুটের একটি বাসেও ভাঙচুর চালানো হয়। ওই ঘটনায় ঘাটালের বাস ব্যবসায়ী ও কর্মীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। ঘাটালের বাস মালিক সংগঠনের পক্ষে প্রভাত পান বলেন, “এ ভাবে বাসে ভাঙচুর করা হলে আগামী দিনে বাস মালিকেরা সমস্যায় পড়বেন। বাসের কর্মীরা আতঙ্কিত।”

Advertisement

আজ, রবিবার পরিবহণমন্ত্রী তথা দলের জেলা পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীর মেদিনীপুরে এসে নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় মিছিল করার কথা। তৃণমূলের এক সূত্রে খবর, শনিবার মেদিনীপুরে এসেছিলেন শুভেন্দু। এদিন পুরুলিয়ায় তাঁর কর্মসূচি ছিল। মেদিনীপুর হয়েই তিনি হেলিকপ্টারে করে পুরুলিয়া যান।

শনিবার বিকেলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের কোর কমিটির বৈঠক ছিল। সেখানে জেলা সভাপতি অজিত মাইতি জানান, নতুন নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতায় আন্দোলন হলেও রাস্তা অবরোধ করা যাবে না। আন্দোলন যাতে শান্তিপূর্ণ থাকে সে দিকে নজর থাকবে। দলের কর্মীদের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement