Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

নাচের ভিডিয়োয় ছেলেকে চিনলেন মা

প্রায় ১১ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া কিশোর উত্তম সাউট্যাকে ওই ভিডিয়ো দেখে নিজের সন্তান বলে দাবি করেছেন তাঁর মা। আপাতত সেই ছেলের খোঁজ পেতে পুলিশের দ

নিজস্ব সংবাদদাতা
তমলুক ২০ নভেম্বর ২০১৯ ০০:২৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
 হারিয়ে যাওয়ার সময় উত্তম।

হারিয়ে যাওয়ার সময় উত্তম।

Popup Close

বাংলা গানের তালে নাচছেন এক যুবক। সোশ্যাল নেটওয়ার্কি সাইটে সেই ভিডিয়ো দেখে চমকে গিয়েছিলেন সঞ্জয় মাজি—এ ছেলেটা তাঁদের গ্রামের হারিয়ে যাওয়া কিশোর উত্তম না!

প্রায় ১১ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া কিশোর উত্তম সাউট্যাকে ওই ভিডিয়ো দেখে নিজের সন্তান বলে দাবি করেছেন তাঁর মা। আপাতত সেই ছেলের খোঁজ পেতে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি।

তমলুকের খারুই এলাকার আচাইপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিল উত্তম ওরফে ফেঙ্কু। তাঁর ভক্তি জানাচ্ছেন, জন্মের পর থেকেই কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল সে। একটি বড় হলে তার নেশা হয়ে দাঁড়ায়, গানের তালে নাচ করা। এলাকার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান হলে সেখানে গিয়ে নাচ করত উত্তম। ২০০৮ সালের ১৮ জুলাই সে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফিরে আসেনি। তমলুক, মেচেদা ও কোলাঘাটের বিভিন্ন গ্রামে খোঁজ করেও উত্তমের সন্ধান না তমলুক থানায় একটি নিখোঁজের ডায়েরি করে তার পরিবার। কিন্তু গত ১১ বছরেও উত্তমের খোঁজ মেলেনি।

Advertisement

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক যুবকের নাচের কয়েকটি ভিডিয়ো দেখেন আচাইপুর গ্রামেরই বাসিন্দা সঞ্জয়। কাজের সূত্রে ভিন্‌ রাজ্যে থাকা সঞ্জয় জানান, এক যুবককে বাংলা গানের সঙ্গে নানা ভঙ্গিতে নাচতে দেখে তাঁকে তাঁর উত্তম বলে মনে হয়। কারণ, উত্তমও ওই একই রকম ভাবে নাচত। এর পরে সঞ্জয় ভিডিয়োটি উত্তমের পরিবার এবং এলাকার বাসিন্দাদের দেখান। তখনই ভিডিয়োর যুবককে নিজের হারিয়ে যাওয়া ছেলে উত্তম বলে চিহ্নিত করেন ভক্তি।

এদিকে, ভিডিয়োটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ালেও সেটি কোন এলাকায় রেকর্ড করা হয়েছে, তা জানা যায়নি। তাই ফের ছেলেকে খোঁজার জন্য ভক্তি স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ও তমলুক থানার কাছে আর্জি জানিয়েছেন। ভক্তি বলেন, ‘‘ছোটবেলা থেকেই উত্তমের খুব নাচের নেশা ছিল। আমাদের গ্রাম ছাড়াও আশেপাশের এলাকায় অনুষ্ঠান হলেই চলে যেত। ভিডিয়ো দেখেই ছেলেকে চিনতে পেরেছি। আমার ছেলেকে ফিরে পেতে চাই।’’

উত্তমের আত্মীয় খারুই গ্রামের প্রাক্তন গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য তাম্রধ্বজ পাঁজা বলেন, ‘‘প্রায় ১১ বছর আগে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ চালিয়েছিলাম। সে সময় পুলিশ উত্তমকে খোঁজার বিষয়ে তৎপরতা দেখায়নি। কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক যুবকের নাচের ছবি দেখে উত্তমকে চিনতে পেরেছি। দরমার বেড়া দেওয়া ঘরের মধ্যে বাংলা গানের সঙ্গে ওকে নাচতে দেখে মনে হচ্ছে, ও নিরাপদ কোথাও আশ্রয় পেয়েছে।’’

এ ব্যাপারে খারুই-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সিরজুল খান বলেন, ‘‘ওই কিশোরের নিখোঁজের বিষয়টি আমরা জানি। এখন ওকে উদ্ধার করতে পুলিশ যাতে ফের পদক্ষেপ করে, সে বিষয়ে আবেদন করেছি।’’ তমলুক থানার পুলিশের দাবি আর্জি মতো তারা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করবে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement