Advertisement
১৮ জুন ২০২৪
Didir Suraksha kavach

বিক্ষোভ দেখে গ্রাম ‘এড়ালেন’ দিদির দূত

পানীয় জলের সমস্যা না মিটলে ‘ভোট বয়কটের’ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খালতিপুর গ্রামের মানুষ। তাঁদের দাবি, কালিয়াচকে আর্সেনিকের প্রকোপ রয়েছে।

বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী। নিজস্ব চিত্র

বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কালিয়াচক শেষ আপডেট: ২১ মার্চ ২০২৩ ০৯:০৭
Share: Save:

অভিযোগ, এলাকায় আর্সেনিকের প্রকোপ থাকলেও মিলছে না পরিস্রুত পানীয় জল। সোমবার আর্সেনিকমুক্ত পানীয় জলের দাবিতে প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভ দেখালেন গ্রামবাসীদের একাংশ। তাঁদের বিক্ষোভ এড়াতে গ্রামেই ঢুকলেন না ‘দিদির দূত’ রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। এ দিন ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের কালিয়াচকের খালতিপুর গ্রামে। যদিও বিক্ষোভের আড়ালে ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্য’ রয়েছে বলে দাবি করেন সাবিনা। তিনি বলেন, “২০২৪ সালের মধ্যে প্রতিটি বাড়িতে পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছনোর জন্য রাজ্য সরকার উদ্যোগী হয়েছে।”

পানীয় জলের সমস্যা না মিটলে ‘ভোট বয়কটের’ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খালতিপুর গ্রামের মানুষ। তাঁদের দাবি, কালিয়াচকে আর্সেনিকের প্রকোপ রয়েছে। আর্সেনিক শরীরে ঢোকায় বহু মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। তার পরেও, টিউবওয়েলের জল খেতে হচ্ছে। পরিস্রুত পানীয় জলের জন্য একাধিক বার পথে নেমে আন্দোলন করা হয়েছে, দাবি গ্রামবাসীদের। স্থানীয় বাসিন্দা দিলবর শেখ বলেন, “ভোটের সময় আর্সেনিকমুক্ত পানীয় জল দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। ভোট ফুরোলেই নেতা-নেত্রীদের দেখা যায় না। আমাদের সেই টিউবওয়েলের জল খেতে হয়। তাই এ দিন নিরুপায় হয়ে গ্রামে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে।”

এ দিন কালিয়াচকের সিলামপুর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে দিদির দূত কর্মসূচিতে যান রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। তাঁর খালতিপুর গ্রামেও যাওয়ার কথা ছিল। মন্ত্রীর গ্রামে আসার খবর ছড়িয়ে পড়তেই প্ল্যাকার্ড হাতে জমায়েত হন গ্রামের মহিলা, পুরুষেরা। তাঁদের বিক্ষোভের আঁচ পেয়ে খালতিপুর গ্রামের কর্মসূচি এড়িয়ে যান সাবিনা ইয়াসমিন। তিনি বলেন, “মানুষের সমস্যার কথা শুনতেই আমরা গ্রামে যাচ্ছি। তবে বিরোধীরা রাজনীতির জন্য গ্রামের সাধারণ মানুষদের উস্কানি দিচ্ছে।” দক্ষিণ মালদহের বিজেপির সভাপতি পার্থসারথি ঘোষ বলেন, “বিরোধীরা নয়, দিদির দূতদের গ্রামের মানুষই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

kaliachak Didir Doot
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE