Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

কার্ড বিলি করে শুরু খাদ্যসুরক্ষা

নিজস্ব সংবাদদাতা
বালুরঘাট ০১ এপ্রিল ২০১৫ ০২:২৫

ঘোষণা মতই আজ পয়লা এপ্রিল থেকে খাদ্যসুরক্ষা আইন প্রকল্পের সূচনা হচ্ছে দক্ষিণ দিনাজপুরে। তবে আপাতত ডিজিটাল রেশন কার্ড বিলির মাধ্যমে। জেলাশাসক তাপস চৌধুরী বলেন, কুশমন্ডি ব্লকে ১ লক্ষ ২০ হাজার উপভোক্তার মধ্যে ইতিমধ্যে পঞ্চান্ন হাজারের উপর বাসিন্দাদের ডিজিটাল রেশন কার্ড বিলি হয়েছে। আজ, বুধবার জেলার গঙ্গারামপুর বাদে বাকি ৬টি ব্লকে ওই প্রকল্পের আওতাভুক্ত বাসিন্দাদের মধ্যে ডিজিটাল রেশন কার্ড বিলি শুরু হবে। তারপরেই পুরো প্রকল্পটি চালু হয়ে যাবে। অর্থাৎ খাদ্য সুরক্ষা আইনে আওতাভুক্ত গ্রাহকেরা খাদ্যশস্য নয়, সূচনাপর্বে পাচ্ছেন ডিজিটাল রেশন কার্ড। প্রশাসন সূত্রের খবর, এক সপ্তাহ ধরে কার্ড বিলির এই প্রক্রিয়া চলবে।

রাজ্যে পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে পয়লা এপ্রিল থেকে দক্ষিণ দিনাজপুরে খাদ্য সুরক্ষা আইন চালুর কথা ঘোষণা করেছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু একদিকে কার্ড সমস্যা এবং অন্যদিকে প্রযুক্তির অভাবে শেষপর্যন্ত এদিন থেকে উপভোক্তাদের খাদ্যশস্য সরবরবাহের কর্মসূচি থেকে প্রশাসনকে পিছিয়ে আসতে হয়েছে বলে অভিযোগ। এদিন জেলা খাদ্য নিয়ামক অমরেন্দ্র রায় বলেন, ‘‘জেলায় ইতিমধ্যে চাল ও গমের বরাদ্দ এসে গিয়েছে। ওপর থেকে নির্দেশ পেলেই আমরা তা উপভোক্তাদের মধ্যে বিলি বন্টন শুরু করব।’’ তবে বাস্তব পরিস্থিতি হলো খাদ্য সুরক্ষা আইন প্রকল্পের আওতায় জেলার ১০ লক্ষ ৬৬ হাজার ৬২৯ জন উপভোক্তার কাছে ডিজিটাল রেশন কার্ড পৌঁছে দেওয়ার পর প্রকল্পটি চালু সম্ভব হবে।

রাজ্যে প্রথম দক্ষিণ দিনাজপুরে ডিজিটাল রেশন কার্ড চালু করে খাদ্য সুরক্ষা আইন চালুর কথা ঘোষণা করেছিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। কিন্তু সময় মতো কলকাতা থেকে ডিজিটাল রেশন কার্ড ছাপা হয়ে না আসায় সমস্যা হবে বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি প্রথম দফায় কেবল কুশমন্ডি ব্লকে কার্ড পাঠিয়ে গত ২৪ মার্চ থেকে উপভোক্তাদের মধ্যে তা বিলি শুরু করা হয়। প্রশাসন সূত্রের খবর, এদিন কুশমন্ডিতে সবমিলিয়ে ৫৫ হাজারের কিছু বেশি কার্ড বিলি করা সম্ভব হয়েছে। বুধবারের মধ্যে বাকি কার্ড বিলি শেষ করে পূর্ব ঘোষণা মতো কুশমন্ডি ব্লক দিয়েই প্রকল্পটির উদ্বোধন করতে চায় খাদ্য দফতর।

Advertisement

খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘‘দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডি ব্লক দিয়েই এদিন খাদ্য সুরক্ষা আইন চালু হচ্ছে।’’ তবে কুশমন্ডি ব্লকে মোট ১ লক্ষ ২০ হাজার উপভোক্তার মধ্যে একদিনে কী করে বাকি প্রায় ৬৫ হাজার কার্ড বিলি সম্পূর্ণ করে খাদ্যশস্য বিলি করা যাবে, এই প্রশ্নের কোনও সদুত্তর মেলেনি খাদ্য দফতরের কাছে। তাছাড়া জেলার প্রায় ৩০০ রেশন দোকানের ডিলারকে সরকারিভাবে সফটওয়্যার সরবরাহ, দোকানে কম্পিউটার বসানো এবং ডিজিটাল কার্ড ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়নি। ফলে শুরুতেই জেলায় ওই আইন চালু করতে গিয়ে হোঁচট খেতে হলো রাজ্য সরকারকে।

তপন-কলকাতা বাস। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহনের বালুরঘাট ডিপো থেকে মঙ্গলবার সকালে তপন-কলকাতা দিনের রকেট বাস পরিষেবা চালু হলো। যাত্রার সূচনা করেন নিগমের বোর্ড অফ ডিরেক্টরের সদস্য বিপ্লব খাঁ।

আরও পড়ুন

Advertisement