Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

নকশালবাড়ির ড্যামেজ কন্ট্রোলে ভবানীপুরের বস্তিতে ছুটলেন লকেট

নিজস্ব সংবাদদাতা
০৪ মে ২০১৭ ১৬:১৪
চেতলার যে বাড়িতে গিয়েছিলেন অমিত শাহ, বৃহস্পতিবার সকালে সেখানে আবার গেলেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই।

চেতলার যে বাড়িতে গিয়েছিলেন অমিত শাহ, বৃহস্পতিবার সকালে সেখানে আবার গেলেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই।

বেজায় অস্বস্তির মুখে পড়তে হয়েছে নকশালবাড়িতে। এ বার ভবানীপুরেও কি একই অবস্থা হবে? ঝুঁকি নিল না রাজ্য বিজেপি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিজের নির্বাচনী ক্ষেত্রের অন্তর্গত চেতলা লকগেট বস্তি এলাকার যে দু’টি পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন অমিত শাহ, বৃহস্পতিবার তড়িঘড়ি সেই দুই বাড়িতে পৌঁছলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। ভয়ের কোনও কারণ নেই, বিজেপি সব সময় পাশে থাকবে— সন্ধ্যা বৈদ্য, আলপনা মণ্ডলদের এমনই আশ্বাস দিয়ে এলেন বিজেপি নেত্রী। চেতলার ওই দুই পরিবারকেও তৃণমূলে ভেড়ানোর চেষ্টা শুরু হয়েছে, অভিযোগ রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের। তা রুখতেই লকেট তাঁদের বাড়ি গিয়েছিলেন বলে দিলীপবাবু জানিয়েছেন।

বিজেপির ‘বুথ চলো’ কর্মসূচির সূচনা করতে ২৫ এপ্রিল উত্তরবঙ্গে পা রেখেছিলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। পর দিন, ২৬ এপ্রিল, তিনি একই কর্মসূচির সূচনা করেন দক্ষিণবঙ্গে। উত্তরবঙ্গে নকশালবাড়ি থেকে শুরু হয়েছিল বুথ অভিযান। দক্ষিণবঙ্গে বেছে নেওয়া হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্র ভবানীপুরকে। ২৬ এপ্রিল ভবানীপুরের চেতলা লকগেট বস্তি এলাকায় দু’টি পরিবারের সঙ্গে অমিত শাহ আলাদা করে কথা বলেন— সন্ধ্যা বৈদ্যের পরিবার এবং আলপনা মণ্ডল-অতনু মণ্ডলের পরিবার। অমিত শাহের সেই সফরের রেশ কাটার আগেই নকশালবাড়ির রাজু-গীতাকে তৃণমূলে সামিল করে নিয়েছে রাজ্যের শাসক দল। এ বার চেতলার দুই পরিবারকেও ‘হাইজ্যাক’ করার চেষ্টা শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ।

Advertisement



গত ২৬ এপ্রিল চেতলার লকগেট বস্তি এলাকা থেকে দক্ষিণবঙ্গের জন্য ‘বুথ চলো’ কর্মসূচির সূচনা করেছিলেন অমিত শাহ। তৃণমূল সেই এলাকার বিজেপি কর্মীদের এ বার শাসতে শুরু করেছে বলে রাজ্য বিজেপির দাবি। —ফাইল চিত্র।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বললেন, ‘‘ওই এলাকার কয়েক জন তৃণমূল নেতা স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের উপর চাপ বাড়ানো শুরু করেছেন। অমিত শাহকে যাঁরা সন্ধ্যা-আলপনাদের বাড়িতে নিয়ে গিয়েছিলেন, তাঁদের ডেকে পাঠিয়ে তৃণমূল জিজ্ঞাসাবাদ করেছে, চাপ দিতে শুরু করেছে।’’ তৃণমূলের চাপের কাছে চেতলার ওই দুই পরিবার যাতে নতি স্বীকার না করে, বিজেপি তার জন্যই সচেষ্ট হয়েছে বলে দিলীপ ঘোষ জানান।

আরও পড়ুন: অমিতকে পাত পেড়ে ভাত খাইয়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন রাজু-গীতা

লকেট চট্টোপাধ্যায় দলীয় কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বৃহস্পতিবার চেতলায় যান। দু’টি পরিবারের সঙ্গেই তিনি দেখা করেন, কথা বলেন। এলাকার যে সব বিজেপি কর্মীর উপর তৃণমূল চাপ বাড়িয়েছে বলে অভিযোগ, তাঁদের সঙ্গেও বিজেপি নেত্রী কথা বলেন। লকেটের কথায়, নকশালবাড়ির রাজু মাহালি-গীতা মাহালিকে ভয় দেখিয়ে তৃণমূল দলে টেনেছে। ভবানীপুরের সন্ধ্যা বৈদ্য-আলপনা মণ্ডলদেরও একই ভাবে চাপ দেওয়া শুরু হয়েছে। পুলিশ কোনও ভাবেই বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের সাহায্য করছে না বলে লকেটের অভিযোগ। ‘‘এ রাজ্যের পুলিশ শাসক দলের হাতের পুতুল হয়ে কাজ করছে’’, চেতলায় এ দিন তোপ দাগেন বিজেপি নেত্রী। পুলিশ কিছু করুক বা না করুক, বিজেপি সব সময় পাশে থাকবে— চেতলার দু’টি বাড়িতে গিয়ে এই প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছেন লকেট।

আরও পড়ুন

Advertisement