Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বাড়ি ফিরল ওন্দার জঙ্গলে ফেলা শিশু

নিজস্ব সংবাদদাতা
বাঁকুড়া ৩১ অগস্ট ২০১৭ ০৬:৫০

অবশেষে বাড়ি ফিরে গেল ওন্দার জঙ্গলে উদ্ধার হওয়া সেই শিশুকন্যা। বুধবার বাঁকুড়ার জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু প্রশাসনিক ভাবে ওই শিশুকন্যাকে তার বাবা মায়ের হাতে তুলে দিলেন।

গত ১২ জুলাই ওন্দার মাজডিহা গ্রাম পঞ্চায়েতের আমলাতোড়ার জঙ্গল থেকে ছ’মাসের ওই শিশুকন্যাকে উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটির ডান পায়ে সংক্রমণ ছিল বলে তাকে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। হাসপাতালের কর্মীরা ওই শিশুকন্যাকে দেখে চিনতে পারেন। প্রশাসনিক আধিকারিকদের হাসপাতালের কর্মীরা জানান, কয়েক মাস আগেই ওই শিশুকন্যাকে বাঁকুড়া মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছিল।

এরপরে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন ও বাঁকুড়া চাইল্ড লাইনের উদ্যোগে ওই শিশুকন্যার পরিচয় উদ্ধার করা হয়। ওই শিশুর মাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি চাইল্ড লাইনের কাছে দাবি করেন, দ্বিতীয়বার মেয়ে হওয়ায় মানসিক অশান্তিতে ভুগছিলেন তিনি। এ ছাড়াও শিশুটি জন্মের থেকেই নানা অসুখে ভুগছে। এই সবের জেরেই কন্যা সন্তানটিকে হাসপাতাল থেকে ছুটি করিয়ে জঙ্গলে ফেলে তার মৃত্যুর মিথ্যা গল্প ফেঁদেছিলেন।

Advertisement

তবে পরবর্তী সময়ে ওই বধূ নিজের ভুল বুঝতে পেরে মেয়েকে ফিরিয়ে নিতে চান। এ দিন বাঁকুড়ার জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসু বলেন, ‘‘শিশুটি এখন অনেকটাই সুস্থ। তার বাবা-মা তাকে ফিরে পেয়ে খুব আনন্দিত । আমি চাইল্ড লাইনকে ওই পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে বলেছি।’’ শিশুটি তার পরিবার ফিরে পাওয়ায় খুশি বাঁকুড়া মেডিক্যালের অধ্যক্ষ পার্থপ্রতিম প্রধান। বাঁকুড়া চাইল্ড লাইনের কোঅর্ডিনেটর সজল শীলের কথায়, ‘‘উদ্ধার হওয়া সদ্যোজাতদের ঠিকানা হোমই হয়ে ওঠে। এ ক্ষেত্রে শিশুকন্যাটি অবশ্যই ব্যতিক্রমী হতে পেরেছে, এটাই আমাদের বড় পাওনা।’’

ওই শিশুকন্যার বাবা-মা দুর্গাপুর বি জোনের বাসিন্দা ওই দম্পতির কথায়, ‘‘ঝোঁকের মাথায় করা ভুলের বড় মাসুল গুনতে হয়নি। আর কখনও মেয়ের যত্নে ত্রুটি হবে না।’’

আরও পড়ুন

Advertisement