Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৩ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বৃষ্টিতে বাতিল বহু ট্রেন

এ দিন সকালে দুর্গাপুর স্টেশন চত্বরে গিয়ে দেখা গেল, স্টেশনের সামনে জল জমেছে। অনুপ চট্টোপাধ্যায় নামে এক যাত্রী বলেন, ‘‘হাতে চটি নিয়ে স্টেশন থে

নিজস্ব প্রতিবেদন
১১ অক্টোবর ২০১৭ ০১:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
জল-পথ: মঙ্গলবার দুর্গাপুর স্টেশন চত্বর। নিজস্ব চিত্র

জল-পথ: মঙ্গলবার দুর্গাপুর স্টেশন চত্বর। নিজস্ব চিত্র

Popup Close

টানা ঝড়, জলে প্রভাব পড়েছে জেলার পরিবহণ ব্যবস্থাতেও। মঙ্গলবার দিনভর ভোগান্তিতে পড়েন রেলযাত্রী থেকে বাসযাত্রী, সকলেই। বেশ কিছু ট্রেন বাতিলও করা হয়েছে।

এ দিন সকালে দুর্গাপুর স্টেশন চত্বরে গিয়ে দেখা গেল, স্টেশনের সামনে জল জমেছে। অনুপ চট্টোপাধ্যায় নামে এক যাত্রী বলেন, ‘‘হাতে চটি নিয়ে স্টেশন থেকে বের হলাম।’’ এ ছাড়া বৃষ্টিতে রেললাইনে জল জমেছে। গাছ পড়ে সকাল থেকে ট্রেন চলাচলেও সমস্যা দেখা দেয়। দুর্গাপুরে যাত্রী সুবিধার্থে মিনিবাসগুলি বাসস্ট্যান্ড থেকে সরে উঁচু জায়গায় রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে যাত্রী ওঠানো-নামানোর ব্যবস্থা করে। অটো চলেছে হাতেগোনা। পূর্ব রেলের আসানসোল ডিভিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান থেকে আসানসোলের মধ্যে মানকর, রানিগঞ্জ ও অন্ডাল ইয়ার্ডে জল জমায় সমস্যা দেখা দেয়। অন্ডালে কেবিনের উপরে গাছ ভেঙে পড়ে। এ ছাড়া আসানসোলে রেলের সেডে বিদ্যুতের সমস্যা দেখা দেয়।

এ ছা়ড়া মানকর, রানিগঞ্জ, কাজোড়া গ্রাম, বরাকর, সীতারামপুর, মুগমা, বারাবনি, আসানসোল কারসেড, অন্ডাল ইয়ার্ড এবং প্রচন্ড বৃষ্টিপাতের জন্য আসানসোলে ওভারহেড বিদ্যুতেরও সমস্যা দেখা দিয়েছে। এর ফলে ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটেছে। অন্ডাল ও সীতারামপুর এলাকায় রেললাইনে গাছের ডাল পড়ে বিপত্তি ঘটে। প্রচন্ড বৃষ্টিতে কুলটি ও সাতারামপুর স্টেশন লাগোয়া ডাউন রেললাইনে কিছুটা অংশে মাটি ধসে গিয়েছে বলে রেল সূত্রে খবর। পরে অবশ্য পাথড় ও মাটি বুজিয়ে রেললাইন চলাচলের উপযোগী করা হয়। বৃষ্টির জেরে আসানসোল টাটা এক্সপ্রেস, অন্ডাল-জসিডি প্যাসেঞ্জার, জসিডি বাঁকা প্যাসেঞ্জার ট্রেন বাতিল করা হয়। একাধিক মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেনও দেরিতে চলছে বলে রেলের তরফে জানানো হয়েছে।

Advertisement

আসানসোল স্টেশন লাগোয়া ডিপোপাড়া যাওয়ার রেল টানেল ও রেলপারের কশাই মহল্লা লাগোয়া রেল টানেল জলমগ্ন হওয়ায় দিনভর যানবাহন যাতায়াত করেনি। ফলে গোটা দিনই মূল শহরের সঙ্গে ওই এলাকার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ঝড়-জলের কারণে আট ঘণ্টা ধরে বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকে অন্ডালের রেল টানেল। এ ছাড়া অন্ডালের গোপালমাঠ শ্রীরামপুর রেল সেতুর নীচের রাস্তাটিও দীর্ঘক্ষণ জলমগ্ন ছিল। মিনিবাস সংগঠনের সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্ডাল-উখড়া রুটে ৫৪টি মিনবাসের
মধ্যে আটটা চলেছে। এই সুযোগে উখড়া থেকে অন্ডাল মোড় টোটো চলেছে। যাত্রী পিছু ৩৫টাকা ভাড়া নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। রাস্তা জলমগ্ন থাকায় ঘণ্টাছয়েক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল রানিগঞ্জের বল্লভপুর নুপূর-বেলুনিয়ার যোগাযোগের রাস্তাটিও।

বৃষ্টি না হলে আজ, বুধবার থেকে পরিস্থিতির উন্নতির আশা করা হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement