Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২

সিউড়ি কোর্টে পাড়ুই শুনানিতে স্থগিতাদেশ

সিউড়ি আদালতে পাড়ুই মামলার শুনানির উপরে স্থগিতাদেশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ২৮ এপ্রিল থেকে সিউড়ির আদালতে সাগর ঘোষ খুনের মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওই মামলায় সিবিআই তদন্ত নিয়ে ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত নিম্ন আদালতে শুনানি বন্ধ থাকবে বলে আজ নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জে চেলামেশ্বর ও বিচারপতি আর কে অগ্রবালের বেঞ্চ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৫ ০৩:২১
Share: Save:

সিউড়ি আদালতে পাড়ুই মামলার শুনানির উপরে স্থগিতাদেশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট। আগামী ২৮ এপ্রিল থেকে সিউড়ির আদালতে সাগর ঘোষ খুনের মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওই মামলায় সিবিআই তদন্ত নিয়ে ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত নিম্ন আদালতে শুনানি বন্ধ থাকবে বলে আজ নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জে চেলামেশ্বর ও বিচারপতি আর কে অগ্রবালের বেঞ্চ। ওই খুনের ঘটনায় সিবিআই তদন্ত চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সাগর ঘোষের ছেলে হৃদয় ঘোষ। এই বিষয়ে রাজ্য সরকারের বক্তব্য জানতে চেয়ে আগেই নোটিস দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

Advertisement

২০১৩ সালের ২১ জুলাই বীরভূমের পাড়ুইয়ে নিজের বাড়িতে গুলিবিদ্ধ হন প্রাক্তন স্কুলশিক্ষা কর্মী সাগর ঘোষ। দু’দিন পরে তাঁর মৃত্যু হয়। সাগরবাবুর ছেলে হৃদয় ঘোষ এক সময়ে তৃণমূল কর্মী ছিলেন। পরে তিনি বিক্ষুব্ধ তৃণমূল হিসেবে নির্দল প্রার্থী হন। এখন হৃদয়বাবু বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। সাগরবাবুর খুনের ঘটনায় তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল-সহ ৪১ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন তাঁর পুত্রবধূ শিবানী ঘোষ। অনুব্রতর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, সাগরবাবুর খুনের কয়েক দিন আগে তিনি নির্দলদের উপরে হামলা চালানোর জন্য উস্কানিমূলক বিবৃতি দিয়েছিলেন।

প্রথম থেকেই সাগর ঘোষ খুনের মামলায় সিবিআই তদন্তের বিরোধিতা করে আসছে রাজ্য সরকার। গত বছর সেপ্টেম্বরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হরিশ টন্ডন সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন। রাজ্য সরকার হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে যায়। ডিসেম্বরে আবার ডিভিশন বেঞ্চ সিবিআই তদন্তের নির্দেশ খারিজ করে দেয়। এর পরেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন সাগর ঘোষের পুত্র হৃদয় ঘোষ। হৃদয়বাবুর আইনজীবী শীর্ষেন্দু সিংহরায় বলেন, ‘‘২৭ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট রাজ্য সরকারকে নোটিস জারি করেছিল। তার পর সিবিআই তদন্তের বিষয়ে আর শুনানি হয়নি। এ দিকে রাজ্য সরকার চাইছিল নিম্ন আদালতে খুনের মামলার শুনানি শুরু করে দিতে।’’ শীর্ষেন্দুবাবুর দাবি, ‘‘নিম্ন আদালতে ওই শুনানি শুরু হলে সিবিআই তদন্তে আপত্তি জানাত রাজ্য সরকার। তারা সুপ্রিম কোর্টে যুক্তি দিত যে, মামলার শুনানি শুরু হয়ে গিয়েছে। এখন আর সিবিআই তদন্তে কোনও লাভ নেই। আমরা আজ তাই নিম্ন আদালতের শুনানির উপর স্থগিতাদেশ চেয়েছিলাম। আদালত তাতে সম্মতি দিয়েছে।’’

তবে সিবিআই তদন্তের মামলার পরবর্তী শুনানি কবে হবে, তা এখনও নিশ্চিত নয়। শীর্ষেন্দুবাবু জানিয়েছেন, রাজ্য সরকার এখনও এই বিষয়ে বক্তব্য জানায়নি। রােজ্যর আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এখনও সিবিআই তদন্ত চেয়ে মামলার শুনানি হয়নি।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.