Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Calcutta High Court: মমতার উপস্থিতিতে আইনজীবীদের বিজেপি-র কাঠামো বোঝালেন বিচারপতি চন্দ 

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৪ জুন ২০২১ ২১:৫৯
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

কলকাতা হাই কোর্টে নন্দীগ্রাম মামলায় উঠে এল বিজেপি-র সাংগঠনিক কাঠামোর বিষয়। বাদী পক্ষের আইনজীবীর কাছে বিচারপতি জানতে চান, তিনি বিজেপি-র দলীয় কাঠামো সম্পর্কে অবহিত কি না। আইনজীবীও জানান, তিনি ওই বিষয়টি ভাল করে জানেন। বিজেপি-র কাঠামো নিয়ে যখন চলছে আলোচনা তখন ভার্চুয়াল মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নন্দীগ্রাম আসনে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলে মামলা করেন মমতা। বৃহস্পতিবার কলকাতা হাই কোর্টে ছিল ওই মামলার শুনানি। বিচারপতি কৌশিক চন্দের এজলাসে ওঠে মামলাটি। তা নিয়ে আপত্তি জানান মমতা। তাঁর আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি আদালতে দাবি করেন, বিচারপতি চন্দের সঙ্গে বিজেপি-র পূর্ব যোগ রয়েছে। তিনি বিজেপি-র ‘লিগ্যাল সেল’-এর প্রধানও ছিলেন। তাই এই মামলার নিরপেক্ষতা নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন উঠবে। এর পরেই সিঙ্ঘভির উদ্দেশে বিচারপতির প্রশ্ন, ‘‘আপনি বিজেপি-র দলীয় কাঠামো জানেন?’’ জবাবে মমতার আইনজীবী বলেন, ‘‘আমি এই ব্যাপারে অনেক সচেতন। অধিভক্ত পরিষদে বক্তৃতা করার জন্য আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু আমি যেতে আগ্রহ প্রকাশ করিনি।’’

সাংগঠনিক ভাবে বিজেপি-র শাখা হিসেবে অনেক মোর্চা রয়েছে। যেমন যুব মোর্চা, মহিলা মোর্চা, সংখ্যালঘু মোর্চা ইত্যাদি। কিন্তু ‘সেল’-এর ক্ষেত্রে একটিই রয়েছে। বৃহস্পতিবার মোর্চা ও সেলের সেই বিভাগের কথা উল্লেখ করেন বিচারপতি চন্দ। তথাগত রায়, রাহুল সিংহের আমল থেকে বিজেপি-র হয়ে মামলা লড়ার কথা জানান তিনি। এমনকি এ নিয়ে তিনি খুশি ছিলেন বলেও জানান। এ প্রসঙ্গে আইনজীবী থাকাকালীন নিজের অভিজ্ঞতাও তুলে ধরেন বিচারপতি চন্দ। তিনি বলেন, ‘‘আমি যখন বিজেপি-র হয়ে মামলা লড়তে গিয়েছিলাম, বিচারক বলেছিলেন, কোন পার্টির? আমি বলেছিলাম, ভারতীয় জনতা পার্টির। তিনি ফের জিজ্ঞেস করেন, কোন পার্টি? তখন আমি বলি, বিজেপি। বিচারপতি বলেন, ও বিজেপি।’’

Advertisement

বেঞ্চ বদলের শুনানিতে যখন মনু সিঙ্ঘভি ও কৌশিক চন্দের মধ্যে এই সব বিষয় নিয়ে সওয়াল চলছিল, সেই সময় ভার্চুয়াল মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন মমতাও। তাঁকে কিছু সময়ের জন্য স্ক্রিনে দেখাও যায়। তবে সরাসরি মমতা কোনও কিছুই বলেননি। আইনজীবীদের মারফতই তিনি তাঁর জবাব দিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Advertisement