Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

পিংলা

অভিমান ভুলে সৌমেনের প্রচারে অজিত

নিজস্ব সংবাদদাতা
খড়্গপুর ১৪ মার্চ ২০১৬ ০০:৪৬

তিনি তৃণমূলের জেলা কার্যকরী সভাপতি। প্রার্থী হতে না পেরে তিনি মুখ হাঁড়ি করেছিলেন। রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র পিংলা বিধানসভার দলীয় প্রার্থী হওয়া সত্ত্বেও নিজের খড়্গপুর-২ ব্লকে আট দিন হাত গুটিয়ে বসেছিলেন। পাশে ছিলেন তাঁর অনুগামীরা। তবে বৈঠক ডেকে তাঁর মান ভাঙিয়েছেন প্রার্থী নিজেই। এ বার প্রার্থীকে নিজের প্রতিভা দেখাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন তৃণমূলের জেলা কার্যকরী সভাপতি অজিত মাইতি।

শনিবার কর্মিসভায় কয়েকজন সিপিএম সমর্থকের হাতে দলের পতাকা তুলে দিয়েছিলেন তিনি। রবিবার একেবারে প্রার্থীকে সঙ্গে নিয়ে ব্লকের বিভিন্ন অঞ্চলে কর্মিসভা করতে বেরিয়ে পড়েন অজিতবাবু। প্রথমে যান পপরআড়া অঞ্চলের বলরামপুরে। এর পরে সেখান থেকে পৌঁছন সাঁকোয়া অঞ্চলে। এ দিন সাঁকোয়ার এক কর্মিসভায় যোগ দেন তাঁরা। সেখানেই সিপিএমের ধারিম্বা দক্ষিণ বুথের পঞ্চায়েত সদস্য লুৎফর বিবি-সহ সিপিএমের কয়েকজন কর্মীকে অজিতবাবু দলে নেন। এভাবে ভোটের মুখে সিপিএম ভাঙানোর কাজ দেখিয়ে অজিতবাবু নিজের কৃতিত্ব দেখাতে চাইলেন বলেই দলের একাংশের মত। এক তৃণমূল কর্মীর কথায়, “অজিতদা চাইলে সৌমেনবাবুর জয় যে নিশ্চিত করতে পারেন সেটা এভাবে বুঝিয়ে দিলেন।” যদিও অজিতবাবু বলছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়ন দেখে ধারিম্বা পঞ্চায়েত সদস্য-সহ কয়েকজন সিপিএম কর্মী আমাদের দলে এসেছেন। সেখানে আমি হয়তো উদ্যোগী হয়ে সেতু তৈরি করেছি। তবে এর জেরে আমাদের ভোট আরও বাড়বে।” অজিতবাবুর কৃতিত্বে জল ঢেলে সিপিএমের খড়্গপুর-২ জোনাল সম্পাদক কামের আলি বলেন, “ওই সিপিএমের কর্মীরা বহু আগেই চাপের মুখে তৃণমূলের দিকে ঝুঁকেছিল। এখন ভোটের মুখে সেগুলি দেখিয়ে তৃণমূল কৃতিত্ব পেতে চাইছে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement