Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Kunal Ghosh: পাগলা দাশুর ‘আবার সে এসেছে ফিরিয়া’-র মতো সংলাপের অপেক্ষায় থাকব, তথাগতকে কুণাল

শনিবার সকালে বিতর্কিত টুইট করেন তথাগত। যে টুইটে তথাগতের দল ছাড়ার জল্পনা ছড়ায় পদ্মশিবিরের অন্দরে। পাল্টা টুইট করে তথাগতকে বিঁধলেন কুণাল।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২০ নভেম্বর ২০২১ ১০:৫০
Save
Something isn't right! Please refresh.
তথাগতের টুইটের জবাব কুণালের

তথাগতের টুইটের জবাব কুণালের

Popup Close

তথাগত রায়কে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ। শনিবার সকালেই এক বিতর্কিত টুইট করেন তথাগত। যে টুইটে তথাগতের দল ছাড়ার জল্পনা ছড়ায় পদ্মশিবিরের অন্দরে। এর প্রেক্ষিতে টুইটে কুণাল লিখেছেন, ‘বাংলার রাজনৈতিক বিনোদন জগতে এ এক অপূরণীয় সাময়িক ক্ষতি। তিনি যে দক্ষতায় দর্শককে হাসাতেন, তাঁর অবদান মানুষ মনে রাখবেন। পাগলা দাশুর নাটকে 'আবার সে এসেছে ফিরিয়া'-র মত সংলাপের অপেক্ষায় থাকব। তবে কামিনী অংশ বাদ দিলেও কাঞ্চন অংশে সিবিআই, ইডির তদন্তের দাবি থাকলই।’

শনিবার সকালে টুইটে তথাগত লেখেন, ‘আপাতত বিদায়, পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি!’ এর পরই রাজনৈতিক মহলে তথাগতের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। শনিবার সকালে তাঁর টুইট ঘিরে এর পর বাংলার রাজনৈতিক মহলে আলোড়ন দেখা দেয়। সংবাদমাধ্যমে এই টুইট নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তথাগত বলেন, ‘টুইটে যা লিখেছি, তার বাইরে একটিও কথা বলব না।’ তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, তা হলে কি আপনি দল ছাড়ছেন? উত্তরে তথাগত বলেন, ‘আমি টুইটে ‘আপাতত’ শব্দটি লিখেছি। এর থেকে বেশি আর কিছু বলব না।’ ফলে তাঁর পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে জল্পনা রয়েই যায়। তথাগতের প্রতিক্রিয়ার পর কুণালের টুইট তাই যথেষ্ট ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলেই মনে করা হচ্ছে।

Advertisement

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি-র ভরাডুবির পর থেকেই টুইটারে একের পর এক বোমা ফাটিয়েছেন ত্রিপুরা এবং মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল। বিজেপি-র পরাজয়ের জন্য নিজের মত তিনি ব্যক্ত করে চলেছেন টুইটারের মাধ্যমে। কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক-সহ বাংলার বিভিন্ন নেতা এবং তাঁদের কাজকর্মকে নিশানা করেছিলেন তিনি। ভোটের আগে বিভিন্ন অভিনেত্রীদের দলে নেওয়ার বিরুদ্ধেও সুর চড়িয়েছিলেন তিনি। মে মাসেই বিজেপি-র তারকা প্রার্থীদের একাংশকে ‘নগরীর নটী’ বলে আলোড়ন ফেলেছিলেন। এবং ‘তাঁদেরকে টিকিট দিয়েছিল কে?’— এই প্রশ্ন টুইটের মাধ্যমে তিনি ছুড়েছিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়, শিব প্রকাশ এবং অরবিন্দ মেননদের উদ্দেশে। এর পর শনিবার সকালে এল ওই টুইট-বোমা।


(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement