Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

উস্কানি দিয়েছে রাম, দাবি গ্রামবাসীদের

কিছু দিন আগেও কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত এই যুবক তৃণমূলের ছাতার তলায় কিছু দিন কাটিয়ে লোকসভা ভোটের পরে বিজেপির শিবিরে ভিড়েছিল বলে স্থানীয় সূত

নিজস্ব সংবাদদাতা
বাদুড়িয়া ২৪ এপ্রিল ২০২০ ০৪:১৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
বাদুড়িয়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ।—ফাইল চিত্র।

বাদুড়িয়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ।—ফাইল চিত্র।

Popup Close

সপ্তাহখানেক আগে চাল-আলু বিলিয়েছে পুলিশ। উত্তর ২৪ পরগনার বাদুড়িয়ার জোড়া অশ্বত্থতলার কেউ সরকারি রেশন পাননি বলে ক্ষোভের কথা শোনা যায়নি। তা হলে বিক্ষোভ সামলাতে আসা সেই পুলিশের উপরেই বুধবার কেন চড়াও হল জনতা?

রাম দাস নামে এক বিজেপি কর্মী-সহ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বসিরহাট আদালতের নির্দেশে রামকে পাঠানো হয়েছে পুলিশি হেফাজতে। খুনের চেষ্টা, সরকারি কাজে বাধা দেওয়া-সহ বেশ কিছু অভিযোগে মামলা হয়েছে।

কে ওই রাম? কিছু দিন আগেও কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত এই যুবক তৃণমূলের ছাতার তলায় কিছু দিন কাটিয়ে লোকসভা ভোটের পরে বিজেপির শিবিরে ভিড়েছিল বলে স্থানীয় সূত্রের খবর। দলের মিটিং-মিছিলে দেখা যাচ্ছিল তাকে। যে কাউন্সিলর ত্রাণ বিলি নিয়ে স্বজনপোষণ করছেন অভিযোগ, সেই অরিত্র ঘোষের দাবি, রাম ও তার পরিবার প্রচুর ত্রাণ পেয়েছে। কিন্তু নগদ টাকা চেয়ে কিছু লোক নিয়ে মঙ্গলবার রাতে কাউন্সিলরের বাড়িতে যায় রাম। ৯ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর অরিত্রর দাবি, টাকা না মেলায় গোলমাল পাকানোর হুমকি দিয়েছিল সে। পর দিন, বুধবার সকালে কিছু লোক ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতি, স্বজনপোষণের অভিযোগে অবরোধ শুরু করে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, সেখানে নেতৃত্ব দিতে দেখা গিয়েছিল এই রামকেই। পুলিশ কর্মীকে মারতে মারতে গ্রামের ভিতরে টেনে নিয়ে যাওয়ার সময়ে রামকে দেখেছেন অনেকেই।

Advertisement

বিজেপির মণ্ডল সভাপতি বিশ্বজিৎ পাল বলেন, ‘‘রাম আমাদের দলের সমর্থক মাত্র। তার এত ক্ষমতা নেই, মানুষকে উস্কে এমন কাজ করাবে।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি তারক ঘোষের দাবি, শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পুলিশ লাঠি চালানোর ফলেই জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন,‘‘আমাদের কাউন্সিলর দাসপাড়ায় ত্রাণের চাল বিলি করতে গিয়েছিলেন। কয়েক প্যাকেট কম পড়েছিল। পরে দেওয়া হবে বলায় রাম হম্বিতম্বি করে। ও-ই উসকে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে।’’

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement