Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Industry conference: ফেব্রুয়ারিতে শিল্প সম্মেলন রাজ্যে

বৈঠকের পরে মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী জানিয়েছেন, উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরে আপাতত একটি ব্লক থেকে তেল উত্তোলন করবে ওএনজিসি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:২১
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতেই শিল্প সম্মেলন করতে চাইছে রাজ্য সরকার। এখনও পর্যন্ত যা পরিকল্পনা তাতে, ২২-২৪ ফেব্রুয়ারি শিল্প সম্মেলন হবে। বুধবার শিল্প প্রোমোশন বোর্ডের বৈঠকে রাজ্যে বিনিয়োগ পরিস্থিতি, সম্ভাবনা এবং কার্যকারিতা নিয়ে সবিস্তার বিশ্লেষণ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ শিল্প, অর্থ, বিদ্যুৎ, মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্প ইত্যাদি দফতরের মন্ত্রী-সচিবেরা।
প্রশাসনের শীর্ষমহলের মতে, রাজ্যের সামনে এখন বিনিয়োগের প্রভূত সম্ভাবনা রয়েছে। রাজ্যের সেই সম্ভাবনা এবং শিল্পসহায়ক পদক্ষেপগুলি শিল্প সম্মেলনের আগেই আন্তর্জাতিক মঞ্চের সামনে সরকার তুলে ধরতে চাইছে। ফলে সম্মেলনের আগে বাইরের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে সংযোগ করতে চাইছে রাজ্য।

এ দিনের বৈঠকের পরে মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী জানিয়েছেন, উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরে আপাতত একটি ব্লক থেকে তেল উত্তোলন করবে ওএনজিসি। তাতে ১২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের সঙ্গে কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়বে। উত্তর ২৪ পরগনা, পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া এবং হুগলিতে ‘ওয়েল ড্রিল’ করে তেলের সন্ধান চালানোর জন্যও তাদের প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র দিয়েছে রাজ্য। মুখ্যসচিব বলেন, “এটা সফল হলে রাজ্যের শিল্প মানচিত্রে বড়সড় পরিবর্তন আসবে।” পাশাপাশি, গ্যাস পাইপলাইনের কাজও দ্রুত শেষ করার উপর জোর দিচ্ছে নবান্ন। ২০২৪-এর মার্চের মধ্যে পাইপ পাতার কাজ শেষ করতে চায় সরকার। ইতিমধ্যে দু’টি সিএনজি সাব-স্টেশন তৈরি হয়েছে। আরও চারটি তৈরি করা হবে।
তাজপুরের সমুদ্র বন্দর প্রকল্পের জন্য মেরিটাইম বোর্ড সবিস্তার সমীক্ষা করেছে। প্রকল্পের কাছাকাছি প্রায় ১৪০০ একর জমি রয়েছে সরকারের হাতে। এ বার দরপত্র প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইছে রাজ্য। মুখ্যসচিব জানান, তাজপুরে ‘মাইনর পোর্ট’ রাজ্য নিজেই তৈরি করবে। তবে কেউ আগ্রহ দেখালে তা বিবেচনা করবে সরকার।

ডেটা-সেন্টারের জন্য নতুন নীতি তৈরি করছে রাজ্য। সরকারের লক্ষ্য তথ্যপ্রযুক্তির সর্বাধুনিক ‘ক্লাউড’ এবং কৃত্রিম মেধা (আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্স) নির্ভর প্রযুক্তি সংক্রান্ত কাজের সুযোগ বাড়ানো। তাতে রাজ্যের মেধাকে ধরে রাখা যাবে। মুখ্যসচিব জানান, রিলায়্যান্স ডেটা সেন্টার তৈরির কাজ করছে। হুগলিতে এমন ক্ষেত্রে বিনিয়োগের প্রস্তাব রয়েছে। ভুট্টা ও ভাঙা চাল থেকে ইথানল তৈরির ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের উৎসাহ দিচ্ছে রাজ্য। আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের ১৫টি প্রস্তাব রয়েছে রাজ্যের কাছে। প্রায় ২৬৬৬ বিনিয়োগের পাশাপাশি ১৪ হাজারের মতো কর্মসংস্থানের সুযোগও তৈরি হবে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement