×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

২৬/১১-র মূল মাথা সাজিদকে ধরতে ৫০ লক্ষ ডলার পুরস্কার ঘোষণা আমেরিকার

সংবাদ সংস্থা
২৮ নভেম্বর ২০২০ ১২:৩৮
শুধু মুম্বই হামলা নয়, আমেরিকা, আস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, ডেনমার্ক এবং ব্রিটেনে একাধিক হামলার পিছনেও সাজিদ জড়িত বলে মার্কিন গোয়েন্দারা মনে করছেন। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

শুধু মুম্বই হামলা নয়, আমেরিকা, আস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, ডেনমার্ক এবং ব্রিটেনে একাধিক হামলার পিছনেও সাজিদ জড়িত বলে মার্কিন গোয়েন্দারা মনে করছেন। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

বারো বছর ‘নিখোঁজ’ ২৬/১১-র মূল চক্রী সাজিদ মিরকে ধরতে ৫০ লক্ষ ডলার পুরস্কার মূল্যের ঘোষণা করল আমেরিকা। সে দেশের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই-এর ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় থাকা সাজিদ ওরফে ‘আঙ্কল বিল’ পাকিস্তানেই গা-ঢাকা দিয়ে রয়েছে বলে সূত্রের খবর। শুধু মুম্বই হামলা নয়, আমেরিকা, আস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, ডেনমার্ক এবং ব্রিটেনে একাধিক হামলার পিছনেও সাজিদ জড়িত বলে মার্কিন গোয়েন্দারা মনে করছেন। অথচ, এমন এক ধুরন্ধর জঙ্গি সম্পর্কে বিশেষ তথ্য পাওয়া যায় না। সেই তথ্য পেতে এবং তাকে ধরতেই এ বার পুরস্কার কথা ঘোষণা করল আমেরিকার ‘রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস প্রোগ্রাম’।

কে এই সাজিদ মির? কেন তাঁর সম্পর্কে বিশেষ তথ্য গোয়েন্দাদের হাতে নেই?

গত অক্টোবরে জিহাদ ওয়াচ এক রিপোর্টে লিখেছিল, ‘একটি মাত্র মুখের ছবি ছাড়া কোনও দেশের কোনও গোয়েন্দা সংস্থার কাছে সাজিদ সম্পর্কে বিশেষ তথ্য নেই’। ওই রিপোর্টে আরও লেখা হয়, ‘সত্যি বলতে সাজিদ সম্পর্কে খুব বেশি কিছু জানাও যায় না। ওর ছেলেবেলা কোথায় কী ভাবে কেটেছে, তা নিয়েও ধোঁয়াশা। কিছু সংবাদপত্রের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে মাত্র ১৬ বছর বয়সে সাজিদ লস্কর-ই-তইবার সদস্য হয় এবং দ্রুত উপরে উঠতে থাকে। কিন্তু অন্য সূত্র বলছে, সাজিদ আসলে পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর অফিসার। যে লস্করের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে কাজ করে। আমেরিকার ল’ এনফোর্সমেন্ট বিভাগের এক কর্তার কথায়, ‘‘সাজিদ খুবই শক্তিশালী। জাল এত দূর বিস্তৃত যে ওর নাগাল পাওয়া খুব কঠিন। আমরা চাই পাকিস্তানিরাও তালিব এবং আল কায়দা জঙ্গিদের ধরতে সচেষ্ট হোন।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: নীলবাড়ি দখলের লড়াইয়ে ২৯৪ কেন্দ্রের প্রার্থীই নিজে বাছবেন শাহ

যদিও আমেরিকার ‘রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস প্রোগ্রাম’ এর তরফে জারি করা বিবৃতিতে অবশ্য সাজিদকে লস্কর জঙ্গি হিসেবেই চিহ্নিত করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘পাকিস্তানের মাটি থেকে কার্যকলাপ চালানো জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবার সদস্য সাজিদ। ২০০৮ সালে মুম্বই হামলার পিছনে সে ছিল মূল মস্তিষ্ক। ওকে ধরার জন্য যে কোনও তথ্য পেতে ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে’। ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘মুম্বই হামলার পরিকল্পনা, প্রস্তুতি এবং তা কার্যকর করা পর্যন্ত সব কিছুর সঙ্গে জড়িত ছিল সাজিদ। আমেরিকার বিভিন্ন সময় হামলার সঙ্গে জড়িত সাজিদকে ২০১১ সালের ২১ এপ্রিল আমেরিকার ইলিনয়ের এক আদালতে অভিযুক্ত করা হয়। সেই মামলায় বলা হয়েছিল, ২৬/১১-র ঘটনাতেও বিদেশিদের আটকে রাখার নির্দেশ এসেছিল সাজিদের কাছ থেকে। বিভিন্ন বন্দিদের হত্যার নির্দেশও সে দিয়েছিল। দীর্ঘ দিন থেকে সাজিদ এফবিআই-এর মোস্ট ওয়ান্টেড তালিকায় রয়েছে’।

আরও পড়ুন: খোশমেজাজে রিসেপশন পার্টিতে অনির্বাণ ও মধুরিমা, সঙ্গে চমক দেওয়া অনুষ্ঠানও

Advertisement