×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

৮০০ বছরের বালক ‘আত্মীয়’দের খুঁজে পেল রুশ বিজ্ঞানীদের সাহায্যে

সংবাদ সংস্থা
১০ মে ২০১৬ ১৮:৩৯
এই সাইবেরিয়ানরাই ওই মমির উত্তরপুরুষ, বলছেন বিজ্ঞানীরা।

এই সাইবেরিয়ানরাই ওই মমির উত্তরপুরুষ, বলছেন বিজ্ঞানীরা।

আসলে সে এক বালক। কিন্তু বয়স হয়েছে ৮০০ বছর। শতাব্দীর পর শতাব্দী তার কোনও খোঁজ ছিল না। এত দিন পর তার খোঁজ তো মিলেইছে। রুশ বিজ্ঞানীরা তার ডিএনএ মিলিয়ে খুঁজে বার করেছেন তার ‘আত্মীয়’দেরও।

৮০০ বছর বয়স কারও কী ভাবে হয়? আর তাকে বালকই বা বলা হচ্ছে কেন? ধন্দ লাগবেই। আসলে, যে বালকের কথা বলা হচ্ছে, তার বয়স বাড়া ৮০০ বছর আগেই থেমে গিয়েছে। বালক বয়সেই তার মৃত্যু হয়েছিল। তার মৃতদেহ মমি করে সংরক্ষণ করা হয়। সম্প্রতি রাশিয়ার সালেখার্দ শহরে মমিটির সন্ধান মিলেছে। কার্বন ডেটিং করিয়ে জানা গিয়েছে মমিটির বয়স ৮০০ বছর।

আরও পড়ুন:

Advertisement
মোট ৩১টি আঙুল নিয়ে জন্মাল শিশু!



এই সেই ৮০০ বছরের পুরনো মমি।

রাশিয়ায় মমি করে মৃতদেহ সংরক্ষণের রেওয়াজ খুব বেশি ছিল বলে জানা যায় না। কিন্তু ৮০০ বছর আগে এক বালকের মৃতদেহকে মমি করে রাখা হয়েছিল, এই তথ্য প্রত্নতত্ত্ববিদদের যেমন চমকে দিয়েছে, তেমনই চমকে দিয়েছে নৃতত্ত্ববিদদেরও। মমিটি নিয়ে একাধিক গবেষণা শুরু করেছেন রুশ বিজ্ঞানীরা। রাশিয়ার কোন জনগোষ্ঠীর মধ্যে মমি করার রেওয়াজ ছিল, পরীক্ষা করে জানার চেষ্টা হয়েছে তাও। মমিটি থেকে ডিএনএ-র নমূনা সংগ্রহ করে বিজ্ঞানীরা পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়েছেন। পরীক্ষায় বোঝা গিয়েছে, আধুনিক রাশিয়ায় সাইবেরিয়ান বলে যাঁরা পরিচিত, তাঁদের ডিএনএ-র সঙ্গে ওই ৮০০ বছরের বালকের ডিএনএ-র মিল রয়েছে। আধুনিক সাইবেরিয়ান জনগোষ্ঠীর পূর্বপুরুষ ওই ৮০০ বছরের বালক, বলছেন বিজ্ঞানীরা।

Advertisement