Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ঘৃণারও যোগ্য নও তোমরা! ১৭ মাসের সন্তান কোলে গর্জাচ্ছেন আঁতোয়া

সংবাদ সংস্থা
১৭ নভেম্বর ২০১৫ ১৭:৪৬
সেই লেইরি। যিনি আইএস জঙ্গিদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করেছেন ফেসবুকে।

সেই লেইরি। যিনি আইএস জঙ্গিদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করেছেন ফেসবুকে।

‘‘ঘৃণা করব তোমাদের? তোমরা আমার ঘৃণারও যোগ্য নও!’’

যিনি ফেসবুকের দেওয়ালে এই কথাটা লিখেছেন, তাঁর নাম আঁতোয়া লেইরি। প্যারিসে বাতাক্লাঁ মিউজিক হলে জঙ্গি হামলায় তাঁর স্ত্রী প্রাণ হারিয়েছেন। ফেলে রেখে গিয়েছেন একটি কোলের শিশুকেও।

ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের উদ্দেশ্যে করা ওই ফেসবুক পোস্টে লেইরি লিখেছেন, ‘‘শুক্রবার রাতে তোমরা আমার জীবনের একটি ব্যাতিক্রমী ভালবাসাকে কেড়ে নিয়েছিলে। কেড়ে নিয়েছিলে আমার শিশু পুত্রের মাকে। তোমরা আমার ঘৃণারও যোগ্য নও! তোমরা কারা, আমি জানি না। জানতে চাইও না। তোমরা আমার কাছে মৃত। অনেকটা ভূতের মতো। তবে অনেক বেশি রাগ আর অনেক বেশি ঘৃণা এক সঙ্গে জড়ো হয়ে তোমাদের দিকে ধেয়ে আসছে। আসতেই হবে। সেটাই তো স্বাভাবিক। সেটা যখন এক দিন হঠাৎ তোমাদের ওপর আছড়ে পড়বে, সে দিন তোমরা তা টেরও পাবে না। মৃত্যু যে তার শিয়রে এসে গিয়েছে, সেটা আমার স্ত্রী যেমন সে দিন টেরই পায়নি। এখন তোমরা আমাকে ভয় দেখাচ্ছ। আমাদের ভয় দেখাচ্ছ। আমার দেশেরই অন্য নাগরিককে সন্দেহের চোখে দেখতে শেখাচ্ছ। বোঝাচ্ছ, বাঁচতে হলে সব সময় প্রাণের ভয় নিয়ে বাঁচতে হবে। হাত, পা ছড়িয়ে জীবনটাকে তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করে তোমরা আমাদের বাঁচতে দেবে না। কিন্তু, তোমরা বুঝতে পারছ না, তোমাদের যারা মারবে, তারা গোপনে গোপনে তৈরি হচ্ছে।’’

Advertisement

এর পর স্ত্রীর প্রতি তাঁর ব্যক্তিগত অনুভূতির কথা লিখেছেন লেইরি। তাঁর ফেসবুকের দেওয়ালে লেখা রয়েছে, ‘‘বারো বছর আগে যে দিন ওকে প্রথম দেখেছিলাম, সে দিন সে যতটা সুন্দর ছিল, আর মৃত্যুর পর তার যে মুখটা দেখে এলাম, তার সৌন্দর্য্যও কিছু কম ছিল না। আমাদের দুই আত্মার আবার মিলন হবে স্বর্গে। কিন্তু তোমাদের (আইএস জঙ্গি) কোনও আত্মা নেই! তাই তোমরা সেই সুযোগ পাবে না।’’

ফেসবুকে লিখতে লিখতে লেইরির হঠাৎ মনে পড়ে গিয়েছে তাঁর সতেরো মাস বয়সের শিশু পুত্রের কথা। ঘুম ভেঙে উঠে পড়লে যাকে খাওয়াতে হবে লেইরির। ওই কাজটা যে করত, তার প্রাণ তো কেড়ে নিয়েছে জঙ্গিরা।

ফেসবুকে তাঁর পোস্টের একেবারে শেষ দিকে এসে তাই লেইরি লিখেছেন, ‘‘তোমাদের (আইএস জঙ্গি) জন্য আর আমি সময় নষ্ট করতে পারছি না। আমার সতেরো মাসের ছেলে ঘুম ভেঙে উঠে পড়েছে। ওকে দুধ-টুধ খাওয়াতে হবে। তার পর আমরা দু’জনে মিলে অনেক খেলাধুলো করব। অন্যান্য দিনের মতোই। যেন কিছুই হয়নি আমাদের জীবনে। তবে আমার ছেলেও বড় হয়ে তোমাদের ভয় পাবে না। সে তোমাদের ঘৃণার পাত্র বলেও মনে করবে না! তাতেও যে তোমাদের গুরুত্ব দেওয়া হয়ে যাবে!’’

আরও পড়ুন

Advertisement