×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ভয় কাটানোই লক্ষ্য, ক্যামেরার সামনে টিকা নিতে চান ওবামা, বুশ, ক্লিন্টন, আগ্রহী বাইডেনও

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ১৫:৩৩
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

করোনার প্রতিষেধক নিয়ে তৈরি দু’-দু’টি সংস্থা। নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমতি পেলেই হল। তা হলেই দেশ জুড়ে টিকাকরণ শুরু হয়ে যাবে। কিন্তু প্রতিষেধক নিয়ে অনিশ্চয়তায় নাগরিকদের একটা বড় অংশ। তাঁদের ভয় দূর করতে এ বার এগিয়ে এলেন আমেরিকার প্রাক্তন তিন প্রেসিডেন্ট, বিল ক্লিন্টন, জর্জ বুশ এবং বারাক ওবামা। জানিয়ে দিলেন, প্রতিষেধক যদি নিরাপদ হয়, তাহলে সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার সামনে টিকাগ্রহণে আপত্তি নেই তাঁদের, যাতে তাঁদের দেখে টিকা নিতে উৎসাহী হন দেশবাসী। প্রকাশ্যে টিকাগ্রহণে আগ্রহী হবু প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও।

আমেরিকায় কোভিড প্রতিষেধকের দায়িত্বে রয়েছেন সে দেশের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিস (এনআইএআইডি)-এর ডিরেক্টর অ্যান্টনি ফাউচি। প্রতিষেধক কতটা নিরাপদ সে বিষয়ে তাঁর কাছ থেকে আশ্বাস পেলেই এগিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন ওবামা। একটি রেডিয়ো সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘অ্যান্টনি ফাউচি যদি বলেন, প্রতিষেধক নিরাপদ, কোভিডের বিরুদ্ধে শরীরে সেটি প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম, তাহলে টিকা আমি নেব আমি।’’

সিএনএন-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এর পরে টিকাগ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করেন হবু প্রেসিডেন্ট বাইডেনও। প্রতিষেধকের কতটা নিরাপদ, তা নিয়ে মানুষকে আশ্বস্ত করা প্রয়োজন বলে জানান তিনি। টিকাগ্রহণে এগিয়ে আসার জন্য তিন পূর্বসূরিকে ধন্যবাদও জানান তিনি।

Advertisement

আমেরিকায় এই মুহূর্তে কোভিডের সম্ভাব্য প্রতিষেধক নিয়ে তৈরি দুই সংস্থা, ফাইজার এবং মডার্না। খুব শীঘ্র নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছ থেকে সবুজ সঙ্কেত পেতে পারে তারা।

Advertisement