Advertisement
১২ জুলাই ২০২৪
coronavirus

করোনার ওষুধ সহজলভ্য করতে ভারতের সঙ্গেও হাত মেলাতে রাজি মার্কিন সংস্থা

মুখপাত্রের বক্তব্য, ভারত সেই সব দেশের তালিকায় পড়ে না, যেখানে এখনই রেমডেসিভির পৌঁছে দিতে হবে।

ভাইরাস প্রতিরোধী ওষুধ রেমডেসিভির। ছবি- রয়টার্স।

ভাইরাস প্রতিরোধী ওষুধ রেমডেসিভির। ছবি- রয়টার্স।

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন শেষ আপডেট: ০১ মে ২০২০ ১২:৪৪
Share: Save:

যাতে ভারতের মতো অন্যান্য দেশেও করোনা রোগীদের সারিয়ে তুলতে ভাইরাস প্রতিরোধী ওষুধ ‘রেমডেসিভির’-কে দ্রুত পৌঁছে দেওয়া যায়, সে জন্য বিভিন্ন দেশের সরকার এবং ওষুধ সংস্থার সঙ্গে হাত মেলাতে রাজি মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা ‘গিলিড সায়েন্সেস’। রেমডেসিভিরের নির্মাতা এই সংস্থাই। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে শীর্ষ স্তরের মার্কিন এপিডেমিওলজিস্ট অ্যান্টনি ফাওসি দাবি করেন, আমেরিকা, এশিয়া ও ইউরোপের ৬৮টি জায়গায় এক হাজারেরও বেশি করোনা রোগীর উপর রেমডেসিভির প্রয়েগ করে দেখা গিয়েছে, কোভিড-১৯-এর সংক্রমণ রুখে দিতে পারে ভাইরাস প্রতিরোধী এই ওষুধ।

গিলিড সায়েন্সেসের মুখপাত্র একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘‘রেমডেসিভির ওষুধটিকে কী ভাবে দ্রুত বিভিন্ন দেশে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য পাঠানো যায়, তার জন্য বহু দেশের নানা ধরনের ওষুধ ও রাসায়নিক প্রস্তুতকারক সংস্থার সঙ্গে আমরা এখন একটি গ্লোবাল কনসর্টিয়াম গড়ে তোলার পথে এগচ্ছি। যাতে বিভিন্ন দেশে জরুরি ভিত্তিতে ওষুধটির উৎপাদন ও মজুতভাণ্ডার বাড়ানো যায়।’’

মুখপাত্রটি জানিয়েছেন, ভারত এখনও সেই সব দেশের তালিকায় পড়ে না, যেখানে এই মুহূর্তেই রেমডেসিভির পৌঁছে দিতে হবে। এই পরিস্থিতি যে সব দেশের, তাদের ‘কমপ্যাসনেট ইউজ প্রোগ্রাম’-এর আওতায় রাখা হয়েছে। কারণ, ওই সব দেশের করোনা রোগীদের দ্রুত সারিয়ে তুলতে আর কোনও ওষুধ নেই চিকিৎসকদের হাতে। তবে ভারতে কবে পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে রেমডেসিভির, তার কোনও সময়সীমা জানাননি গিলিড সায়েন্সেসের মুখপাত্র।

আরও পড়ুন: চিনের ‘ব্যর্থ’ ওষুধেই দিশা দেখাচ্ছেন মার্কিন বিজ্ঞানী​

আরও পড়ুন: সংক্রমণ সাগর দত্ত হাসপাতালে, ১৭ চিকিৎসক-সহ কোয়রান্টিনে ৩৬

তাঁর বক্তব্য, খুব প্রয়োজনে যাতে এখনই আমরা বিভিন্ন দেশের করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য রেমডেসিভির পাঠাতে পারি, সে জন্য ইতিমধ্যেই আমাদের সাপ্লাই চেনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই সাপ্লাই চেনকে আরও শক্তিশালী করে তুলতেই এখন বিভিন্ন দেশের সরকার ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির সহযোগিতা প্রয়োজন।

মুখপাত্রটি এও জানিয়েছেন, রেমডেসিভির ওষুধটিকে কত তাড়াতাড়ি উন্নয়নশীল দেশগুলিতে পৌঁছে দেওয়া যায়, সে জন্য তাঁরা গ্লোবাল কনসর্টিয়ামের উদ্যোগের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। ভাইরাস প্রতিরোধী অন্যান্য ওষুধের সঙ্গেও রেমডেসিভিরকে কোভিড রোগীদের উপর প্রয়োগ করলে সুফল মেলে কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন গিলিড সায়েন্সেসের মুখপাত্র।

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE