×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

সংস্কারের পথে নয়া কৃষি আইন উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ, মত আইএমএফ-এর

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ১২:৪৬
আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। —ফাইল চিত্র।

আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। —ফাইল চিত্র।

বিতর্কিত কৃষি আইন নিয়ে কেন্দ্র ও আন্দোলনকারীদের মধ্যে টানাপড়েন অব্যাহত। তার মধ্যেই কেন্দ্রীয় আইনে সমর্থন জানাতে দেখা গেল আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার (আইএমএফ)-কে। তাদের মতে, কৃষিক্ষেত্রে সংস্কারসাধনের সব রকম সম্ভাবনাই রয়েছে নয়া আইন ৩টির। কিন্তু এই নয়া আইন কার্যকর হওয়ার পথে যে বা যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন, তাঁদের নিরাপত্তা দেওয়াও সরকারের কর্তব্য বলে জানিয়েছে আইএমএফ।

শুক্রবার নবম দফায় আন্দোলনকারী কৃষকদের সঙ্গে বৈঠকে বসছে কেন্দ্র। এখনও পর্যন্ত সম্পূর্ণ ভাবে ওই ৩টি আইন প্রত্যাহারের দাবিতেই অনড় কৃষকরা। বিষয়টি ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক মহলের নজরও কেড়েছে। বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের মুখে পড়েন আইএমএফ কমিউনিকেশনস ডিরেক্টর জেরি রাইস। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের মতে, কৃষিক্ষেত্রে সংস্কারসাধনের জন্য এই পদক্ষেপ অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য।’’

রাইসের মতে, ‘‘নয়া আইন কার্যকর হলে সরাসরি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে চুক্তি করতে পারবেন কৃষকরা। দালালদের রমরমা কমবে এবং গ্রামীণ এলাকাগুলিতে উন্নয়ন ঘটবে। কিন্তু এই পরিবর্তন আনার পথে অনেকের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। তাঁদের সামাজিক নিরাপত্তা দিকটিও সরকারকে দেখতে হবে।’’ পরিবর্তন আনতে গিয়ে কৃষকদের রোজগারের রাস্তা যাতে বন্ধ হয়ে না যায়, সে দিকে সরকারকে নজর রাখার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

Advertisement

আরও পড়ুন: অতিমারি সত্ত্বেও ভারত অর্থনৈতিক সঙ্কট দৃঢ়তার সঙ্গে সামলেছে: আইএমএফ​

আরও পড়ুন: গৌরবহানি হলে সুপারপাওয়ারকেও পরোয়া করে না ভারত: রাজনাথ​

কেন্দ্রীয় সরকারির ৩টি বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রায় দু’মাস ধরে রাজধানীর উপকণ্ঠে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন লক্ষ লক্ষ কৃষক। নয়া আইনটি কৃষকদের স্বার্থ বিরোধী বলে অভিযোগ তাঁদের। তাঁদের দাবি, কৃষকদের ভাতে মেরে কর্পোরেটদের পকেট ভারি করতেই এই আইন কার্যকর করতে উঠেপড়ে লেগেছে সরকার। সরকার আইন ৩টি সংশোধনে রাজি হলেও, সেগুলি সম্পূর্ণ ভাবে প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় কৃষকরা। তারই মধ্যে আইএমএফ-এর এই মন্তব্য আন্তর্জাতিকভাবে মোদী সরকারের ভাবমূর্তি খানিকটা হলেও যে উজ্জ্বল করবে, তাতে সন্দেহ নেই।

Advertisement