Advertisement
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
Russia

Russia-Ukraine War: ইউক্রেনের দু’লক্ষ শিশুকে ধরে নিয়ে গিয়েছে পুতিনের সেনা! অভিযোগ জেলেনস্কির

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে সেনা অভিযানের ঘোষণা করায় শুরু হয় যুদ্ধ। বৃহস্পতিবার সেই যুদ্ধের ১০০তম দিন।

পুতিন এবং জেলেনস্কি।

পুতিন এবং জেলেনস্কি।

সংবাদ সংস্থা
কিভ শেষ আপডেট: ০২ জুন ২০২২ ১৪:২৮
Share: Save:

যুদ্ধের ১০০তম দিনে রুশ ফৌজের বিরুদ্ধে শিশু অপহরণের অভিযোগ তুললেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘‘ফেব্রুয়ারিতে হানাদারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ইউক্রেনের প্রায় ২ লক্ষ শিশুকে জোর করে রাশিয়ায় তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।’’

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সেনা অভিযানের ঘোষণা করেছিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তার আগে ইউক্রেনের ডোনেৎস্ক ও লুহানস্ক অঞ্চলকে (যাদের একত্রে ডনবাস বলা হয়) স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার ঘোষণা করেন তিনি। ঘটনাচক্রে, যুদ্ধের পঞ্চম মাসে রুশ হামলার অভিমুখ হয়েছে ডনবাস। সেখানকার মস্কো-পন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীগুলির সহায়তায় নতুন করে অভিযান শুরু করেছে পুতিনের বাহিনী।

পশ্চিমী সংবাদমাধ্যমের খবর, গত কয়েক সপ্তাহের রুশ হামলার জেরে ডনবাস এলাকায় কিছুটা কোণঠাসা হয়ে পড়েছে ইউক্রেন ফৌজ। এই পরিস্থিতিতে জেলেনস্কি আমেরিকার কাছে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র চেয়েছিলেন। কিন্তু জো বাইডেন সরকার জানিয়ে দিয়েছে, রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডে হামলা চালানো যায় এমন কোনও ক্ষেপণাস্ত্র তারা ইউক্রেনকে দেবে না। তবে বুধবার কিছুটা অবস্থান বদলে বাইডেন বলেন, ‘‘ইউক্রেনের আবেদন মেনে আমরা তাদের সীমিত সংখ্যায় মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’’ এর পরেই রুশ বিদেশমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেন, ‘‘আমেরিকা এমন পদক্ষেপ করলে যুদ্ধের পরিধি আরও বিস্তৃত হবে।’’

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.