Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Israel-Hamas Conflict

‘৪০ জন ইজ়রায়েলি শিশুকে গলা কেটে খুন করেছে হামাস’! বাইডেনের দাবি, মিলেছে ‘প্রমাণ’ও

শনিবার রকেট হানা এবং প্যারাগ্লাইডারে চড়ে ইজ়রায়েল ভূখণ্ডে হামলার পাশাপাশি গাজ়া সীমান্তে ইজ়রায়েলের তৈরি ইস্পাতের ‘দি গ্রেট স্মার্ট ফেন্স’ ভেঙে অনুপ্রবেশ করেছিল হামাস বাহিনী।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
ওয়াশিংটন শেষ আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০২৩ ১০:৫৪
Share: Save:

প্যালেস্তেনীয় সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের বিরুদ্ধে ইজ়রায়েলি শিশুদের খুনের অভিযোগ তুললেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘‘গোয়েন্দা সূত্রে আমরা সুনির্দিষ্ট খবর পেয়েছি, অন্তত ৪০ জন ইজ়রায়েলি শিশুকে গলা কেটে হামাস জঙ্গিরা খুন করেছে।’’ শিশুহত্যার ‘সচিত্র প্রমাণ’ আমেরিকার হাতে রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

বুধবার রাতে আমেরিকার ইহুদি জনগোষ্ঠীর নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পরে বাইডেন বলেন, ‘‘আমাদের শিশুদের জঙ্গিরা গলা কেটে খুন করেছে, এমন ছবি দেখতে হবে বলে সত্যিই কখনও ভাবিনি।’’ শনিবার রকেট হানা এবং প্যারাগ্লাইডারে চড়ে ইজ়রায়েল ভূখণ্ডে হামলার পাশাপাশি স্থলপথেও অনুপ্রবেশ করেছিল হামাস বাহিনী। গাজ়া সীমান্তে ইজ়রায়েলের তৈরি ইস্পাতের ‘দি গ্রেট স্মার্ট ফেন্স’ ভেঙে ঢুকে পড়ে প্রায় দু’শো জনকে বন্দি করেন হামাস যোদ্ধারা। অপহৃতদের মধ্যে অনেক নারী এবং শিশুও রয়েছে।

ইজ়রায়েলের পাশাপাশি অপহৃতদের তালিকায় আমেরিকার বেশ কয়েক জন নাগরিকও রয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাইডেন। তিনি জানান, অপহৃত আমেরিকার নাগরিকদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। বাইডেনের দূত হয়ে বৃহস্পতিবার ইজ়রায়েল রওনা হয়েছেন আমেরিকার বিদেশসচিব অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। ইজ়রায়েলি প্রশাসনের একাধিক শীর্ষ আধিকারিকের সঙ্গে বৈঠকের পাশাপাশি আরব নেতৃত্বের সঙ্গেও তাঁর আলোচনার কথা। সেখানে অপহৃতদের মুক্তির বিষয়ে আলোচনা হতে পারে।

ইতিমধ্যেই হামাসের হাতে বন্দি ইজ়রায়েলি এবং আমেরিকার নাগরিকদের মুক্তির জন্য কাতার মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা নিয়েছে। মিশর সরকারও এ বিষয়ে হামাস নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে বলে পশ্চিম এশিয়ার কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের খবর। প্রকাশিত কয়েকটি খবরে দাবি, গাজ়ার গোপন ঠিকানায় বন্দি ইজ়রায়েল এবং আমেরিকার নাগরিকদের এখনও মুক্তি দিতে রাজি নয় হামাস। তাদের আশঙ্কা, অপহৃতদের ফেরত পেলেই গাজ়ায় সর্বাত্মক অভিযানের নির্দেশ দেবে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু সরকার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE