Advertisement
২৬ জুন ২০২৪
US Presidential Election

পেনসিলভেনিয়ায় প্রায় ২০ হাজার ভোটে এগিয়ে বাইডেন

পেনসিলভেনিয়ায় প্রায় ২০ হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছেন জো বাইডেন।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০২০ ১৩:২৮
Share: Save:

ডোনাল্ড ট্রাম্প নাকি জো বাইডেন, আগামী ৪ বছরের জন্য হোয়াইট হাউস কার দখলে থাকবে, তিন দিন পরেও তার জবাব পাওয়া যায়নি। তবে যে পাঁচটি রাজ্যে গণনা এখনও সম্পূর্ণ হয়নি, তার অধিকাংশতেই এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। পেনসিলভেনিয়ায় ২০টি ইলেক্টরাল ভোট জিতে নিতে পারলেই, হোয়াইট হাউসে প্রবেশের জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাজিক সংখ্যা ২৭০-এর বেশি ভোট এসে পড়বে তাঁর ঝুলিতে।

তাই পেনসিলভেনিয়ার দিকেই এখন নজর আটকে রয়েছে সকলের। এই মুহূর্তে বাইডেনের ঝুলিতে ২৫৩টি ইলেক্টরাল ভোট রয়েছে। ট্রাম্পের পক্ষে রয়েছে ২১৪টি। পেনসিলভেনিয়ায় প্রায় ২০ হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টা পর্যন্ত ৯৬ শতাংশ ভোট গণনা হয়েছে সেখানে।

পেনসিলভেনিয়ার ফিলাডেলফিয়ায় এখনও পর্যন্ত যত ব্যালট গোনা হয়েছে, তার ৮০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন বাইডেন। সেখানে ৫ লক্ষ ৫৫ হাজার ৮৩৩ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন তিনি। ট্রাম্প রয়েছেন ১ লক্ষ ২৫ হাজার ৮৯৭-তে। এখনও পর্যন্ত যত ব্যালট গোনা হয়েছে, তার মাত্র ১৮.৩ শতাংশ ভোট তাঁর পক্ষে গিয়েছে।

নেভাদায় ৬টি ইলেক্টরাল ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রেও ২০ হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। জর্জিয়াতেও ১৬০৩ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন তিনি। ট্রাম্প শিবিরের দাবি মেনে সেখানে ভোট পুনর্গণনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেখানকার সেক্রেটারি অব স্টেট ব্র্যাড র‌্যাফেনস্পার্জার সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘ব্যবধান অত্যন্ত কম। জর্জিয়ায় নতুন করে গণনা হবে।’’ জর্জিয়া এবং‌ অ্যারিজোনায় এই মুহূর্তে ট্রাম্পের সঙ্গে ভোটের ব্যবধান প্রায় দ্বিগুণ করে ফেলেছেন বাইডেন।

তবে এই গণনা মানতে নারাজ ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘অন্যায় ভাবে সিডেন্টের দফতর দাবি করা উচিত নয় বাইডেনের। আমিও দাবি করতে পারি। সবে তো আইনি প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। নির্বাচনের রাতে সব জায়গায় এগিয়েছিলাম আমি। কিন্তু যত দিন যেতে লাগল, আশ্চর্যজনক ভবে পিছিয়ে পড়তে লাগলাম আমি। আইনি প্রক্রিয়া এগোলে হয়ত আবার এগিয়ে যাব আমি’।

তবে নির্বাচনে কারচুপির যে অভিযোগ ট্রাম্প তুলেছেন, তা নিয়ে এ বার রিপাবলিকান শিবিরেই অসন্তোষ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে প্রকাশ্যে তাঁর বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন প্রাক্তন রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী তথা সেনেটর মিট রোমনি। তিনি বলেন, ‘‘ভোট কারচুপি, ভোটচুরি এবং ভোট দুর্নীতির অভিযোগ এনে অন্যায় করেছেন ট্রাম্প।’’

এখনও আমেরিকার ৬টি রাজ্যে ভোটগণনা বাকি। এর মধ্যে আলাস্কা বাদ দিয়ে বাকি যে কোনও একটি রাজ্যের ফলই কিন্তু পাল্টে দিতে পারে ডোনাল্ড ট্রাম্প বা জো বাইডেনের ভাগ্য। তাই এই রাজ্যগুলির গণনা ঘিরে উত্তেজনার পারদ চরমে। ঘোষিত রাজ্যগুলির নিরিখে এখন ফল বাইডেন ২৫৩, ট্রাম্প ২১৪।

জর্জিয়ার লড়াই সবচেয়ে কঠিন। এই রাজ্যে ইলেক্টোরাল কলেজ (ইসি) ভোট ১৬টি। বৃহস্পতিবার (ভারতীয় সময়) পর্যন্ত এগিয়ে ছিলেন রিপাবলিকানরা। কিন্তু গণনা যত এগিয়েছে ব্যবধান কমিয়ে এনেছেন বাইডেনের ডেমোক্র্যাটরা। শুক্রবার দুপুর (ভারতীয় সময়) পর্যন্ত ট্রাম্প এগিয়ে ছিলেন দেড় হাজারের মতো ভোটে। কিন্তু বিকেল সাড়ে তিনটের গণনায় দেখা গেল, ট্রাম্পকে পিছনে ফেলে ৯০০ ভোটে এগিয়ে গিয়েছেন বাইডেন। ফলে এখানে যে কেউ জিততে পারেন। পর্যবেক্ষকদের মতে, এই জর্জিয়ায় জিতে গেলেই বাইডেনের সামনে কার্যত হোয়াইট হাউসের রাস্তা পরিষ্কার।

পেনসিলভেনিয়াতেও ব্যবধান কমিয়ে এনেছেন বাইডেন। এই রাজ্যে ইসি ভোট ২০টি। শুক্রবার বেলা ১টা পর্যন্ত গণনা হয়েছে ৯৫ শতাংশ ভোট। তাতে এখন ব্যবধান মাত্র .৩ শতাংশ। বৃহস্পতিবার এই ব্যবধান ছিল দেড় শতাংশেরও বেশি। তবে নর্থ ক্যারোলিনায় ট্রাম্প এগিয়ে প্রায় দেড় শতাংশে। এখানেও গণনা শেষ হয়েছে ৯৫ শতাংশের মতো। এই তিন রাজ্যই রিপাবলিকানদের ঘাঁটি। ইসি ভোটের নিরিখে তিনটিই বড় রাজ্য। ফলে জর্জিয়া বা পেনসিলভেনিয়ার যে কোনও একটিতে রিপাবলিকানরা জিতলেই কিন্তু বাইডেনের জয় নিশ্চিত।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

আরও পড়ুন: ভোটগণনা স্থগিতের দাবি নাকচ আদালতে, ট্রাম্পকে টুইট-খোঁচা গ্রেটা থুনবার্গের

আলাস্কায় (ইসি ভোট ৩) ট্রাম্পের জয় প্রায় নিশ্চিত। অন্য দিকে ডেমোক্র্যাটদের ঘাঁটি দুই রাজ্য অ্যারিজোনা (ইসি ভোট ১১) এবং নেভাদায় (ইসি ভোট ৬) এগিয়ে রয়েছেন ডেমোক্র্যাটরা। অ্যারিজোনায় দু’জনের প্রাপ্ত ভোটের ব্যবধান দেড় শতাংশের মতো। নেভাদায় ১ শতাংশেরও কম। পর্যবেক্ষকদের মতে, অ্যারিজোনা বা নেভাদা হারিয়েও যদি জর্জিয়া বা পেনসিলভেনিয়ায় জিততে পারেন বাইডেন, তা হলেই কিস্তি মাত করে দিতে পারবেন।

আরও পড়ুন: মিলল বার্নির ভবিষ্যদ্বাণী, ভাইরাল ভিডিয়ো

উল্টো দিকে অঙ্কের হিসেবে ট্রাম্পের সামনেও রাস্তা খোলা রয়েছে। আলাস্কায় জয় প্রায় নিশ্চিত তাঁর। পেনসিলভেনিয়া, জর্জিয়া এবং নর্থ ক্যারোলিনা ধরে রেখে যদি অ্যারিজোনা বা নেভাদার যে কোনও একটি শেষ মুহূর্তে জিতে যান, তা হলে কিন্তু দ্বিতীয় বার হোয়াইট হাউসের মসনদে তিনিই বসবেন। যদিও এই সমীকরণ বেশ কঠিন বলেই মনে করছেন আমেরিকার ভোট পর্যবেক্ষকরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE