Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Steel

মুহূর্তে ১৬ হাজার টন ইস্পাত ধ্বংস হয়ে যাওয়ার ভাইরাল ভিডিয়ো

ভবনটি ধ্বংস করতে ২১৯ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে। এমননিয়ন্ত্রিত উপায়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, যাতে এত উঁচু বিল্ডিং ভেঙে পড়ার সময় কোনও দিকে হেলে না পড়ে

মার্টিন টাওয়ার। ছবি : ইউটিউব থেকে নেওয়া।

মার্টিন টাওয়ার। ছবি : ইউটিউব থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
পেনসিলভেনিয়া শেষ আপডেট: ২২ মে ২০১৯ ১৫:৩৫
Share: Save:

১৬ হাজার টন ইস্পাত ধ্বংস হয়ে গেল মাত্র ১৬ সেকেন্ডে। এমনই এক ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ার একটি বিখ্যাত বিল্ডিং ধ্বংসের ভিডিয়ো এটি।

১৯৭২ সাল থেকে পেনসিলভেনিয়ার ২১ তলা ভবনটি একটি ল্যান্ডমার্ক হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল। বেথলেহেম স্টিল সংস্থার এই বিল্ডিংটির নাম মার্টিন টাওয়ার। কিন্তু সংস্থাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত ১২ বছর ধরে মার্টিন টাওয়ার বন্ধ হয়ে পড়ে ছিল। বিল্ডিংটির বর্তমান মালিক ৩৩২ ফুট উঁচু এই বিল্ডিংটিকে আর্থিকভাবে লাভজনক করার অনেক চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু সেই চেষ্টা বিশেষ সফল হয়নি। তাই শেষ পর্যন্ত তাঁকে মার্টিন টাওয়ার ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্তই নিতে হল।

ভবনটি ধ্বংস করতে ২১৯ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে। এমন নিয়ন্ত্রিত উপায়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, যাতে এত উঁচু বিল্ডিং ভেঙে পড়ার সময় কোনও দিকে হেলে না পড়ে। ধাপে ধাপে ধ্বংস হয়ে সোজাসুজি নেমে আসে বিল্ডিংটি। বিস্ফোরণ প্রক্রিয়া শুরু থেকে বিল্ডিংটি পুরোপুরি ধ্বংস হতে সময় নেয় মাত্র ১৬ সেকেন্ড।

ভবনটি ধ্বংসের সেই দৃশ্য দেখার জন্য বহু মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। তাঁরা ক্যামেরা বন্দিও করেন মার্টিন টাওয়ার ধ্বংসের এই দৃশ্য। ভেঙে পড়ার সময় গোটা এলাকা ধুলো, ধোঁয়ায় ঢেকে যায় কিছুক্ষণের জন্য।

এই ভিডিয়ো এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন : বিমান অটো পাইলট মোডে, ধনকুবের মত্ত নাবালিকার সঙ্গে যৌনলীলায়

আরও পড়ুন : গাড়ি ঠান্ডা রাখতে গোবরের প্রলেপ! ফল দেখুন

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE