Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
International News

ডায়ানার বায়োগ্রাফিতে এ কী লিখেছেন লেখক! পড়লে শিউরে উঠবেন

১৯৮১-এর ২৯ জুলাই। ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে ডায়ানার বিয়ের সেই অনুষ্ঠান দেখতে টেলিভিশনে পর্দায় চোখ রেখেছিলেন অনেকেই। আলোকোজ্জ্বল ওই অনুষ্ঠানের মাঝেই ডায়ানার চোখ খুঁজছিল প্রিন্স চার্লসের প্রেমিকা ক্যামিলা পার্কার বোলসকে।

বিয়ের দিনে রাজকুমারী ডায়ানা ও যুবরাজ চার্লস। ছবি: সংগৃহীত।

বিয়ের দিনে রাজকুমারী ডায়ানা ও যুবরাজ চার্লস। ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ১৩ জুন ২০১৭ ১৩:৫৩
Share: Save:

প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে লেডি ডায়ানার বিয়েটা রূপকথার মতো ছিল!

Advertisement

আসলে সেটাই জানত গোটা বিশ্ব। কিন্তু, সে রূপকথা ছিল আসলে বিষাদমাখা! বিয়ের কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন রাজকুমারী ডায়ানা! ‘ডায়ানা: হার ট্রু স্টোরি’-তে এমনটাই দাবি করেছেন তাঁর জীবনীকার অ্যান্ড্রু মর্টন। ওই বইতে খোলসা করে অ্যান্ড্রু জানিয়েছেন, মধুচন্দ্রিমা কাটিয়ে আসার পর মানসিক অবসাদের কারণে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ডায়ানা। পরে এক বন্ধুকে সেই ঘটনার কথা বলেছিলেন রাজকুমারী। দু’জনের সেই কথোপকথন রেকর্ডও করে রেখেছিলেন তাঁরা। ডায়ানার মৃত্যুর কুড়ি বছর পর সেই রেকর্ডিং প্রকাশ্যে এনেছেন অ্যান্ড্রু।

১৯৮১-এর ২৯ জুলাই। ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে ডায়ানার বিয়ের সেই অনুষ্ঠান দেখতে টেলিভিশনে পর্দায় চোখ রেখেছিলেন অনেকেই। আলোকোজ্জ্বল ওই অনুষ্ঠানের মাঝেই ডায়ানার চোখ খুঁজছিল প্রিন্স চার্লসের প্রেমিকা ক্যামিলা পার্কার বোলসকে। রেকর্ডিং-এ ডায়ানাকে বলতে শোনা যাচ্ছে, “বিয়ের মঞ্চের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় আমি ক্যামিলাকে খুঁজছিলাম। আমি জানতাম ওখানে হাজির ছিল সে।”

বিয়ের আগে থেকেই বুলিমিয়া নামে এক ধরনের মানষিক সমস্যাতে ভুগছিলেন তিনি। যার জেরে খাওয়াদাওয়া প্রায় ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি। সে কারণে অত্যন্ত রোগাও হয়ে গিয়েছিলেন রাজকুমারী। বিয়ের পরেও তা থেকে মুক্তি পাননি। সেই সঙ্গে চেপে বসে মানসিক অবসাদ। প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে তাঁর বিয়ে প্রসঙ্গে ডায়ানাকে ওই রেকর্ডিং-এ বলতে শোনা যায়, “ভেবেছিলাম, দুনিয়ার সবচেয়ে ভাগ্যবান মেয়ে আমি। চার্লস আমার খেয়াল রাখবে। তবে, সে ভাবনাটাই ভুল ছিল।”

Advertisement

আরও পড়ুন

ফ্ল্যাটের মধ্যে পড়ে ছিল এই অভিনেত্রীর পচা-গলা দেহ

তখন সুখের দিন: রাজকুমারী ডায়ানা ও যুবরাজ চালর্স। ছবি: সংগৃহীত।

বিয়ের অনুষ্ঠানে ক্যামিলার উপস্থিতি তাঁর অস্বস্তি বাড়িয়েছিল। ক্যামিলার উপস্থিতি তাড়া করেছিল হানিমুনেও। ডায়ানা বলেছেন, “রাতে সব সময়ই স্বপ্নে ক্যামিলাকে দেখতাম। ক্যামিলাকে নিয়ে অবসেসড ছিলাম। চার্লসকেও বিশ্বাস করতে পারতাম না। সারা ক্ষণই মনে হত, পাঁচ মিনিট অন্তর ক্যামিলাকে ফোন করছে চার্লস। আমাদের বিয়ে কী ভাবে সামলাবে তা নিয়ে ক্যামিলার পরামর্শ চাইছে।”

বিয়েতে বিশ্বাসভঙ্গতাই কি শেষমেশ ডায়ানাকে আত্মহত্যা করতে ইন্ধন জুগিয়েছিল?

সে জবাব দেননি ডায়ানার জীবনীকার। তবে তাঁর বইতে ডায়ানার রেকর্ডিংয়ের অংশবিশেষ তুলে ধরেছেন অ্যান্ড্রু। ডায়ানাকে সেখানে স্বীকার করতে শোনা যায়, “আমি এতটাই বিষণ্ণ ছিলাম যে রেজর ব্লেড দিয়ে নিজের হাতের শিরা কেটে ফেলার চেষ্টাও করেছিলাম।” স্কটল্যান্ডের বালমোরাল দুর্গে হানিমুন কাটিয়ে ফিরে আসার পরে অবসাদের জন্য ডায়ানার চিকিৎসাও হয়েছিল বলে জানিয়েছেন অ্যান্ড্রু।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.